• " />

     

    ১০ গোল, দুই লাল কার্ডের 'প্রীতি' মাদ্রিদ ডার্বি জিতল অ্যাটলেটিকো

    যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সিতে ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়নস কাপের ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদকে ৭-৩ গোলের বিব্রতকর ব্যবধানে হারিয়েছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। ডিয়েগো কস্তা একাই করেছেন চার গোল। প্রীতি ম্যাচ হলেও রেফারি লাল কার্ড দেখিয়েছেন দুইবার। কস্ত, দানি কারভাহাল দুইদলের দুইজন একসঙ্গে লাল কার্ড দেখার পর ম্যাচের প্রায় আধঘন্টা খেলা হয়েছে ১০ জনের দলে। 


     

    প্রীতি ম্যাচ হলেও মাদ্রিদ ডার্বির ঝাঁঝ কিছুটা টের পাওয়া গেছে ম্যাচে। রিয়াল ম্যানেজার জিনেদিন জিদান তাই ম্যাচশেষে হতাশ, "আমরা ম্যাচটা শুরুই করেছিলাম বাজেভাবে। বেশ ভালো মানের খেলা হচ্ছিল কিন্তু আমাদের বাজে শুরুটাই সব ঝামেলা পাকাল। ওরা আমাদের বিপক্ষে সাত গোল করেছে, এটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। খেলোয়াড়রাও জানে এটা, তাই তারা হতাশ। তবে এটা প্রাক মৌসুম ম্যাচ। খুব তাড়াতাড়িই এখান থেকে ফিরে আসতে হবে। আমরা প্রীতি ম্যাচের মতো খেলেছি, কিন্তু ওরা তো খেলেনি।"- ম্যাচশেষে বলেছেন জিদান।

    ম্যাচের মাত্র ৫৪ সেকেন্ডে এগিয়ে গিয়েছিল অ্যাটলেটিকো। ডিয়েগো কস্তা করেছিলেন প্রথম গোল। এরপর ৮ মিনিটে গোল করেন অ্যাটলেটিকোর রেকর্ড সাইনিং হোয়াও ফেলিক্স। ইনজুরি শঙ্কায় মাঠ ছাড়া আলভারো মোরাতার বদলি নামা অ্যানহেল কোরেয়া দারুণ এক ভলিতে থেকে ব্যবধান ৩-০ করেন ২০ মিনিট পেরুনোর আগেই। ২৮ মিনিটে আবারও কস্তা, রিয়ালের বাজে ডিফেন্ডিংয়ের সুযোগ পুরোপুরি কাজে লাগান  সল নিগুয়েজ। তার লে অফ থেকে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন কস্তা। রিয়ালের অস্বস্তি আরও বাড়ে বিরতির আগে কস্তা পেনাল্টি আদায় করে নিলে। থিবো কোর্তোয়াকে ভুল দিকে পাঠিয়ে লো শটে প্রথমার্ধ শেষের আগেই হ্যাটট্রিক সেরে নেন কস্তা। আর ৫-০ গোলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় জিদানের দল।

    এডেন হ্যাজার্ড, মিলা ইয়োভিচদের সঙ্গে আক্রমণে নেমেছিলেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র। নিজেদের সেরা একাদশটাই নামিয়েছিলেন জিদান। গ্যারেথ বেল এদিনও ছিলেন না একাদশে। তবে পরে নেমে গোল করতে পারতেন এবারও, কিন্তু সহজ হেডে সুযোগ নষ্ট করেছেন। তার আগেই অবশ্য ম্যাচটা ফস্কে গিয়েছিল তার দলের হাত থেকে। প্রথমার্ধে ৫-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পর দ্বিতীয়ার্ধেও দুর্দশা কাটেনি তাদের। উলটো ফেলিক্সের পাস থেকে এগিয়ে আসা কেইলর নাভাসের মাথার ওপর দিয়ে চিপ করে রিয়ালের জালে বল জড়িয়ে কস্তা উল্লাস বাড়িয়ে দে অ্যাটলেটিকো সমর্থকদের।

    ৫৯ মিনিটে প্রথম গোল শোধ দেয় রিয়াল। বাম দিক থেকে হ্যাজার্ডের ক্রস ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে পারেননি ইয়ান অবলাক। পরে গোলের সামনে ফাঁকায় থাকা নাচো ফার্নান্দেজ করেন দলের প্রথম গোলটি। এর মিনিটে পাঁচেক পর বদলি কারভাহাল ও কস্তা ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়লে রেফারি লাল কার্ড দেখান দুইজনকেই। ১০ জনের দল নিয়েই চলতে থাকে দুইদলের খেলা। ৭০ মিনিটে বদলি ভিতোলো করেন অ্যাটলেটিকোর সপ্তম গোল।

    রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ৮৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে করিম বেনজেমা আরেক গোল শোধ করেন। আর ৮৯ মিনিটে গোললাইনের সামনে থেকে সহজ ফিনিশে আরেক গোল করেন হার্নান্দেজ। ১০ গোল আর দুই লাল কার্ডের প্রীতি মাদ্রিদ ডার্বি তাই মাঠের সমর্থকদের পুরো পয়সাই উসুল করেছে শেষ পর্যন্ত।