• বিপিএল ২০১৯
  • " />

     

    বিপিএলে আসতে পারে 'লভ্যাংশ শেয়ার' মডেল

    বিপিএলে ফ্র্যাঞ্চাইগুলির মাঝে লভ্যাংশ ভাগাভাগির ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে গভর্নিং কাউন্সিলগুলির সঙ্গে। সোমবার ঢাকা ডায়নামাইটস, খুলনা টাইটানস ও রাজশাহী কিংসের সঙ্গে বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের মিটিংয়ের পর আলোচনায় এসেছে এ প্রসঙ্গ। এদিন চার বছরের নতুন সাইকেলের জন্য নিয়ম ঠিক করতে মিটিংয়ে বসেছিলেন তারা। 

    এ ব্যাপারে আলাদা করে লভ্যাংশ শেয়ারের ব্যাপারে প্রস্তাব দিয়েছে রাজশাহী কিংস। এক বিবৃতিতে তারা বলেছে, “ব্রডকাস্ট স্বত্ব, টিকেট, এবং অন্য যে ব্যাপারগুলোতে বোর্ড সংযুক্ত, সেসব ব্যাপারে লভ্যাংশ ভাগাভাগির একটা মডেল হতে পারে। আমরা প্রস্তাব করেছি, লভ্যাংশের একটা ভাগ ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলির মাঝে সমান ভাগে ভাগ হবে। বিশ্বে লভ্যাংশ শেয়ার করার অনেক উদাহরণ আছে, সে অনুযায়ি আমরা শিখতে পারি ও পরিকল্পনা করতে পারি।” 

    অবশ্য ঢাকা ডায়নামাইটস বলছে, এ ব্যাপারে কোনও প্রস্তাব তাদের দিক থেকে দেওয়া হয়নি। তবে ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি বাড়ার ব্যাপারে কথা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাদের প্রধান নির্বাহী ওবায়েদ নিজাম, “ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি নিয়ে কথা হয়েছে, এবার বেশি বাড়বে বলে মনে হচ্ছে। যেহেতু আমরা থাকব, সেটা মেনে নিতে হবে। 

    “আইপিএলে করে, পেপার-পত্রিকায় দেখেছি, ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি চাচ্ছে। রেভিনিউ শেয়ারিং নিয়ে কী করবেন, সেটা তারা জানেন। আমাদের প্রস্তাব ছিল না।”

    আর খুলনা টাইটানসের পরিচালক ইনাম আহমেদ বলেছেন, লভ্যাংশ ভাগাভাগিতে বলে ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি বাড়ানোর প্রস্তাবটা যৌক্তিক, “আমরা যদি লভ্যাংশের শেয়ার চাই তাহলে তাদের কথা হচ্ছে আমাদের ফ্র্যাঞ্চিইজি ফি আরও বেশি দিতে হবে। এটা যৌক্তিক। কেননা আমি যদি লভ্যাংশ নেই, তাহলে আমার ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি বাড়তেই পারে। সেটা নিয়ে কথা হয়েছে। কিভাবে আমরা ফি বাড়িয়ে নিয়ে ‘রাইট ভ্যালু’ নিতে পারি।”

    আর বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য মাহবুব আনাম বলেছেন, “বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজি বিভিন্ন মতামত দিয়েছে, তাদের কথা আমরা শুনেছি। বোর্ড যে সিদ্ধান্ত নিবে, তারা সবাই তারা সব মেনে নিবে বলে জানিয়েছে।”

    নতুন সাইকেলে নতুন নিয়ম করার পর চুক্তি করা হবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলির সঙ্গে। মাহবুব জানিয়েছেন, আজ আলোচনা যে হয়েছে যে তিনটি ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে, তাদের সবাই নতুন সাইকেলে চুক্তির সম্মতি জানিয়েছে।