• লা লিগা
  • " />

     

    ৩০০ ইউরো জরিমানার বিপরীতেও আপিল করবে বার্সা

    অ্যান্টোয়ান গ্রিযমান বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার পর পরই স্প্যানিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বরাবর অভিযোগ করেছিল অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। তাদের দাবি ছিল ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি থাকা অবস্থাতেই বার্সেলোনা গ্রিযমানকে দলে নেওয়ার ব্যাপারে কথা-বার্তা চালিয়ে গেছে। শুনানি শেষে গুরুতর কিছু পায়নি স্প্যানিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন, বার্সাকে তারা জরিমানা করেছে ৩০০ ইউরো। বাংলাদেশী টাকায় যা ২৭ হাজারের কিছু বেশি। এই ঘোষণার পরপরই বার্সা জানিয়েছে তারাও আপিল করবে এই জরিমানার বিপক্ষে। 

    "এই ৩০০ ইউরো জরিমানা যে পুরোপুরি  সাংকেতিক সে ব্যাপারে এ কমিটি অবগত রয়েছে। এর মাধ্যমে বার্সেলোনার শাস্তি হবে না, তবে একই ধরনের পরিস্থিতিতে যে ক্লাবগুলো রয়েছে তাদের জন্য এখান থেকে শেখার রয়েছে। ভবিষ্যতে তারা নিয়মের ভেতর থেকেই এই কাজগুলো সম্পন্ন করবে।" -স্প্যানিশ রয়্যাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের বিবৃতিতে বলা হয়েছে। 

    ইএসপিএন দাবি করেছে বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষ তাদের নিশ্চিত করেছে যে এর বিপক্ষে আপিল করছে তারা। টাকার অঙ্ক সামান্য হলেও জরিমানা প্রদান করলে সেটা হবে নিজেদের দোষ মেনে নেওয়ার সামিল। বার্সেলোনা বরাবরই অ্যাটলেটিকোর অভিযোগ অসত্য এবং নিজেদের দিক থেকে তারা সঠিক প্রক্রিয়ায় দলবদল সেরেছে বলে দাবি করে আছে। 

    বার্সেলোনার মতো অ্যাটলেটিকোও এই শাস্তির বিপক্ষে আপিল করার সুযোগ পাচ্ছে। অ্যাটলেটিকো বলছে সে প্রক্রিয়া তারা চালিয়ে যাবেন।

    এর আগে গত জুলাইয়ে গ্রিযমানকে দলে নেওয়ার খবর নিশ্চিত করেছিল বার্সা। যদিও মে মাসের ১৪ তারিখে গ্রিযমান অ্যাটলেটিকো ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। তখন তার বাই আউট ক্লজ ছিল ২০০ মিলিয়ন ইউরো। জুলাইয়ে যেটা কমে দাঁড়িয়েছে ১২০ মিলিয়ন ইউরোতে।

    অ্যাটলেটিকোর দাবি যেহেতু গ্রিযমান মে মাসেই ক্লাব ছাড়ার ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছেন তার অর্থ বার্সেলোনার সঙ্গে তখন থেকেই কথা-বার্তা চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। সে অনুযায়ী দলবদলে আরও ৮০ মিলিয়ন ইউরো দাবি করে আসছে তারা।