• সাকিবের নিষেধাজ্ঞা
  • " />

     

    সাকিবের নিষেধাজ্ঞায় টুইটারেও ঝড়

    সাকিব আল হাসানের দুই বছরের নিষেধাজ্ঞার খবরটা ঝড় তুলেছে দেশি-বিদেশি সংবাদমাধ্যমে। এই ঘটনার প্রভাব পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও। সাকিবের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে টুইটারেও চলছে নানা আলোচনা সমালোচনা। সাবেক অনেক ক্রিকেটারই বলছেন, সাকিবের শাস্তি পাওয়াটাই উচিত ছিল।

    ভারতীয় জুয়াড়ি দীপক আগারওয়ালের সাথে তিন দফা কথোপকথন আকসুকে জানাননি সাকিব। সেই কারণেই তাকে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা পেতে হয়েছে। যদিও এক বছর পরেই খেলায় ফিরতে পারবেন সাকিব। সাকিবের এই নিষেধাজ্ঞার খবর ছিল গতকালের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অন্যতম প্রধান আলোচ্য ইস্যু। 


    আরও পড়ুনঃ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপসহ যা যা মিস করবেন সাকিব


     

    সাবেক ইংল্যান্ড অধিনায়ক মাইকেল ভন টুইটারে লিখেছেন, সাকিবের জন্য কোনো সমবেদনা অনুভব করছেন না তিনি, ‘সাকিব আল হাসানের জন্য বিন্দুমাত্র সমবেদনা নেই। বর্তমান যুগে ক্রিকেটারদের জানিয়ে দেওয়া হয় তারা কী করতে পারবে আর কী পারবে না। তারা যেন এসব ব্যাপারে সাথে সাথেই রিপোর্ট করে সেটাই বলা হয়। দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা যথেষ্ট না, এটা আরও বেশি হওয়া উচিত ছিল।’ 

    সাবেক নিউজিল্যান্ড অলরাউন্ডার স্কট স্টাইরিসও ভনের সাথে একমত, ‘এক বছরের নিষেধাজ্ঞা মাত্র? এটা তো অবশ্যই দুই বছরের হওয়া উচিত ছিল।’ পাকিস্তানের রমিজ রাজা টুইটে বলেছেন, সাকিবের এই শাস্তি সবার জন্য উদাহরণ হয়ে থাকবে, ‘সাকিবের এই নিষেধাজ্ঞা সব ক্রিকেটার ও সমর্থকদের জন্য উদাহরণ হয়ে থাকবে। নিজেকে ক্রিকেটের চেয়ে বড় ভেবে নিয়ম ভঙ্গ করলে এরকম শাস্তি পেতেই হবে। ব্যাপারটা দুঃখজনক।’ 

    এদিকে ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে বলছেন, এই নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ভালোভাবেই ফিরে আসবেন সাকিব, ‘সাকিবের খেলা সবসময়ই উপভোগ করেছি। আশা করি সে এটা থেকে ভালোভাবে ফিরে আসবে। ভবিষ্যতে ক্রিকেটের প্রতি সে নিজের সম্মানটাও দেখাবে।’