• " />

     

    ৩ বছরের জন্য সবধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ উমর আকমল

    সব ধরনের ক্রিকেট থেকে তিন বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে উমর আকমলকে। দুর্নীতির প্রস্তাব গোপন করার দায়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে তাকে, শেষ পিএসএল শুরুর আগে এ প্রস্তাব পেয়েছিলেন তিনি। এর আগে পিসিবির আনা অভিযোগের বিপক্ষে লড়েননি তিনি, ফলে আনুষ্ঠানিক শুনানির প্রয়োজন পড়েনি। পিসিবির ডিসিপ্লিনারি কমিটি সরাসরি এ শাস্তি দিয়েছে তাকে। 

    পিসিবি এক টুইটে জানিয়েছে, তাদের ডিসিপ্লিনারি কমিটির চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ফজল-ই-মিরান চৌহান আকমলকে এ শাস্তি দিয়েছেন। এর আগে আকমলের বিরুদ্ধে দুর্নীতি-বিরোধী কোডের দুটি ধারা ভঙ্গের দায়ে অভিযোগ এনেছিল পিসিবি। 

    ২০ ফেব্রুয়ারি এ অভিযোগ আনার পর থেকেই ক্রিকেট থেকে বরখাস্ত করা হয়েছিল তাকে। তখন থেকে কোনও ধরনের ক্রিকেট ম্যাচ খেলতে পারেননি তিনি। 

    ২০০৯ সালে পাকিস্তানের হয়ে অভিষেক হওয়া আকমলের ক্যারিয়ারে আরেকটি বড় ধাক্কা হয়ে এলো এ শাস্তি। এর আগেও বেশ কয়েকবার নিষেধাজ্ঞা-জরিমানার কারণে আলোচনায় এসেছিলেন পাকিস্তানের হয়ে ১৬টি টেস্টের সঙ্গে ১২১টি ওয়ানডে ও ৮৪টি টি-টোয়েন্টি খেলা এই ব্যাটসম্যান। 

    এর আগে পাকিস্তানের তখনকার হেড কোচ মিকি আর্থারের প্রকাশ্যে সমালোচনা করে তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছিলেন তিনি। তারও আগে ফিটনেস টেস্ট পাশ করতে না পেরে ট্রেইনারের সঙ্গে অসদাচরণ করেছিলেন তিনি। 

    ২০১৮ সালে এক টিভি সাক্ষাতকারে জুয়াড়িদের কাছ থেকে ২০১৫ বিশ্বকাপে ‘ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে দুটি বল ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তাব’ পেয়েছিলেন বলে জানিয়েছিলেন তিনি। 

    আকমলের নিষেধাজ্ঞায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজা। এক টুইটে তিনি বলেছেন, “সুতরাং, উমর আকমল অফিশিয়ালি ‘ইডিয়ট’ এখন! ৩ বছরের জন্য নিষিদ্ধ সে। মেধার কী দারুণ অপচয়! পাকিস্তানের ফিক্সিংয়ের বিপক্ষে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া জরুরী। এদের কারাগারে দেওয়া উচিৎ, এদের জায়গা সেখানেই। নাহলে আরও এমন কিছুর জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে!”