• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    ধর্ষণের অভিযোগে আটক চেলসি ফুটবলার হাডসন-অডোয়

    ধর্ষণের অভিযোগে চেলসি উইঙ্গার ক্যালাম হাডসন-অডোয়কে আটক করেছে পুলিশ। রবিবার সকালে হাডসন-অডোয়ের পশ্চিম লন্ডনের বাসা থেকে এক নারী পুলিশকে ফোন করে ধর্ষণের অভিযোগ জানানোর পরই সেখানে পুলিশ এবং জরুরী সেবার লোকজন উপস্থিত হয়। সেখান থেকে এরপর তাকে পুলিশ আটক করে। অবশ্য সোমবার সকালে জামিনে ছাড়া পেয়েছেন এই ইংলিশ ফুটবলার। তবে জুনে তাকে আবারও পুলিশের কাছে হাজিরা দিতে হবে বলে জানিয়েছে ইএসপিএন।
     


    গত রবিবার ভোর ৩ টা ৩৫ মিনিটের দিকে হাডসন-অডোয়ের বাসা থেকে অজ্ঞাত এক নারী পুলিশকে ফোন করে তার অসুবিধার কথা জানানোর পর পুলিশ তৎক্ষণাৎ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। তখন সেই নারী হাডসন-অডোয় তাকে ধর্ষণ করেছে বলে পুলিশকে জানায়। এরপরই পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয় চেলসি ফরোয়ার্ডকে।

    বিষয়টি নিয়ে পরবর্তীতে এক বিবৃতিতে পুলিশ জানিয়েছে, “ফোন পেয়ে জরুরী সেবার লোকজন সেখানে পৌঁছানোর পর সেই নারী জানান তিনি ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। পড়ে সেই নারীকে হাসপাতালে পাঠানো হয় এবং ঘটনাস্থল থেকে এক ব্যক্তিকে ধর্ষক সন্দেহে আটক করা হয়। সেই ব্যক্তিকে শুরুতে পুলিশি হেফাজতে আনা হয়, পরবর্তীতে তাকে জামিন দিয়ে জুনের মাঝামাঝি সময়ে আবারও পুলিশের কাছে হাজিরা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।”

    এদিকে তরুণ ফরোয়ার্ডের বিরুদ্ধে এই অভিযোগের বিষয়ে এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও বিবৃতি দেয়নি চেলসি। এই অভিযোগ এবং একইসঙ্গে লকডাউনের বিধান ভঙ্গের কারণে তার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতে পারে চেলসি ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

    গত মার্চে ইংল্যান্ড প্রথম ফুটবলার হিসেবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন হাডসন-অডোয়। করোনা থেকে সেরে উঠতে অবশ্য বেশি সময় লাগেনি তার। আগামী সপ্তাহে দলের সঙ্গে স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় অনুশীলনে যোগ দেওয়ার কথা ছিল হাডসন-অডোয়ের। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন