• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    অনুশীলনে অংশ না নেওয়ায় লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছেন ওয়াটফোর্ডের ট্রয় ডিনি

    করোনাভাইরাস মহামারীর মাঝে অনুশীলনে অংশ নিতে অপারগতা প্রকাশ করেছিলেন প্রিমিয়ার লিগ ক্লাব ওয়াটফোর্ডের অধিনায়ক ট্রয় ডিনি। মূলত ছেলের শ্বাসজনিত জটিলতা থাকাতেই অনুশীলনে গিয়ে পরিবারকে কোন ঝুঁকির মুখে ফেলতে চাননি তিনি। তবে এমনটা করতে গিয়ে বেশ সমস্যার মুখে পড়েছেন এই ফুটবলার। সরাসরি এবং অনলাইনে নিয়মিত হয়রানি ও লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছেন ডিনি এবং তার পরিবার।

    সিএনএন স্পোর্টসের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বিষয়টি তুলে ধরে নিজের ক্ষোভের কথা জানিয়েছেন ডিনি, “এখনকার সময় মানুষ মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি বেশি মনোযোগ দিচ্ছে সবাই। কারো কোনও ধরনের সমস্যা থাকলে তারা যেন তা নিঃসঙ্কোচে প্রকাশ করেন তার ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে, তখনই আমরা মন খুলে মত প্রকাশের জন্য হয়রানির শিকার হচ্ছি।”


    নিউক্যাসল ইউনাইটেডের ডিফেন্ডার ড্যানি রোজও করোনার মাঝেই অনুশীলনের বিষয়টি নিয়ে নিজের মত জানিয়েছিলেন। সেখানে তিনি ফুটবলারদের ‘বৈজ্ঞানিক ল্যাবের ইঁদুরে’র মতো ব্যবহার করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছিলেন। তারপর থেকে তাকেও ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। আর ডিনির সাক্ষাৎকারে এই বিষয়টিও উঠে এসেছে, “আর এই হয়রানিটা যে শুধু রোজ বা আমাকে করা হয় তা নয়। বরং আমার স্ত্রীকে অনলাইনে মেসেজ করা হয়, রাস্তায় দেখলেই লোকজন বলে ওঠে যে, আমি কাজে যাচ্ছি, আপনি যান না কেন? আমি শুধুমাত্র পরিবারের জন্যই অনুশীলনে অংশ নেওয়া থেকে বিরত থাকছি। আমার ৫ মাসের ছেলে আছে, যার শ্বাসজনিত জটিলতা রয়েছে। তাই আমি অনুশীলনে গেলে সেটা আমার পরিবারের ওপর কি প্রভাব ফেলতে পারে, তা নিয়ে আমার আরেকটু ভালোভাবে জানা দরকার ছিল। কিন্তু ক্লাব বা লিগ কর্তৃপক্ষ সেই তথ্যগুলো পরিপূর্ণভাবে নিশ্চিত করতে পারেনি তখন। “

    তবে বর্তমানে সরকারের সঙ্গে কাজ করা এক প্রফেসরের কাছ থেকে বিষয়টি নিয়ে ভালোভাবে জানার চেষ্টা করছেন বলে সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন এই ওয়াটফোর্ড ফরোয়ার্ড।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন