• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    সাবেক চেলসি অ্যাকাডেমি গ্র্যাজুয়েটকে এনে রক্ষণের জোর বাড়াল ম্যান সিটি

    বোর্নমাউথের ডিফেন্ডার নাথান আকে-কে দলে টেনেছে ম্যানচেস্টার সিটি। কয়েকদিন আগে স্প্যানিশ ক্লাব ভ্যালেন্সিয়া থেকে উইঙ্গার ফেরান তোরেসকে সাইন করিয়েছিল সিটিজেনরা। এবার রক্ষণকে শক্তিশালী করতে বেশ খানিকটা অর্থ খরচ করেই আকে-কে দলে আনতে হল। সদ্য সমাপ্ত মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগ থেকে অবনমিত হওয়া বোর্নমাউথের কাছ থেকে এই ডাচ ডিফেন্ডারকে নিয়েছে পেপ গার্দিওলার দল। আর সেজন্য সিটিজেনদের খরচ করতে হয়েছে ৪১ মিলিয়ন পাউন্ড। পাঁচ বছরের চুক্তিতে ইতিহাদে এসেছেন সাবেক চেলসি অ্যাকাডেমি গ্র্যাজুয়েট আকে।

    গত সপ্তাহে দলবদলের ফি-এর ব্যাপারে একমত হয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি এবং বোর্নমাউথ। বুধবার মেডিকেলের পরই সিটির অফিসিয়াল টুইটার থেকে দলবদলের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।


    সিটি ওয়েবসাইটের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাৎকারে গার্দিওলার সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে আছে বলে জানান আকে, “গত এক দশকে ইংল্যান্ডের সেরা দল ম্যানচেস্টার সিটি। এখানে আসা আমার জন্য স্বপ্নের মতো। পুরো দলই বিশ্বমানের খেলোয়াড়দের দিয়ে পূর্ণ। ম্যানেজার হিসেবে পেপ-র খ্যাতি বিশ্বময়। ফুটবল তার অর্জনই সেই সাক্ষ্য দেয়। যে পরিমাণ সাফল্য তিনি পেয়েছেন, সেটি অবিশ্বাস্য। আর তার খেলার ধরনও আমার কাছে ভালো লাগে। আমি জানি, দলে সুযোগ পেতে অনেক পরিশ্রম করতে হবে, তবে আমি তৈরি।”

    ২৫ বছর বয়সী এই ডাচ সেন্টার ব্যাক এখন পর্যন্ত ১১০ টি প্রিমিয়ার লিগ ম্যাচ খেলেছেন। ২০১৭-১৮ এবং ২০১৮-১৯ মৌসুমে বোর্নমাউথের হয়ে লিগ মৌসুমের সবগুলো ম্যাচ খেলেছেন তিনি। প্রিমিয়ার লিগে বর্তমানে খেলা ২৫ বা তার কম বয়সী ডিফেন্ডারদের মাঝে আকের চেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেছেন শুধু আর্সেনালের হেক্টর বেলেরিন এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের লুক শ। আর শুধু সেন্টার ব্যাক হিসেবেই নন, লেফট ব্যাক এবং ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবেও তাকে ব্যবহার করতে পারবেন গার্দিওলা। 

    গত মৌসুমে ডিফেন্ডারদের চোট সমস্যায় বেশ বিপাকে পড়তে হয়েছিল সিটিকে। আর তাই আগামী মৌসুম শুরুর আগে রক্ষণ মজবুত করতে কিছু সাইনিং করাবে, সেটি অনুমিতই ছিল। ভিনসেন্ট কোম্পানি ক্লাব ছেড়ে যাওয়ার পর নতুন কোনও ডিফেন্ডার সাইন করায়নি সিটি। গত মৌসুমে আয়মেরিক লাপোর্তে চোটে পড়ার পর মধ্যমাঠ থেকে রক্ষণে নেমে আসতে হয়েছিল ফার্নান্দিনহোকে। তাই রক্ষণে শক্তিবৃদ্ধি জরুরী ছিল সিটিজেনদের জন্য।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন