• বিশ্বকাপ বাছাই
  • " />

     

    বাংলাদেশ দলে করোনার হানা : ক্যাম্পে যোগ দিয়ে আরও ৭ ফুটবলার জানলেন করোনা পজিটিভ তারা

    প্রথম দুই দিনে খেলোয়াড় ও স্টাফ মিলিয়ে মোট ৩২ জন খেলোয়াড়ের ভেতর ১১ জন করোনাভাইরাস পজিটিভ হওয়ায় তারা অনুশীলন ক্যাম্পে যোগ দেননি। কিন্তু বাংলাদেশ দলের ট্রেনিং ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার পর ফুটবলাররা পেলেন আরও ভয়ঙ্কর খবর। ক্যাম্পে যোগ দেওয়াদের ভেতর নতুন করে ৭ জন খেলোয়াড় ও ১ জন কোচ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে নতুন তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। খেলোয়াড়, স্টাগ সবমিলিয়ে ২৯ জনের ভেতর এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের ১৮ জন ফুটবলার ও ১ জন কোচ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন। এর মধ্যে ২৪ জন খেলোয়াড়ের ভেতর ১৮ জনই করোনায় আক্রান্ত।

    নতুন করে আক্রান্তদের সবাই এখন অবস্থান করছেন গাজীপুরের সারা রিসোর্টে। সেখানেই বাংলাদেশ দলের অনুশীলন ক্যাম্প শুরু হয়েছে ৫ আগস্ট থেকে। ফয়সাল আহমেদ ফাহিম, মানিক হোসেন মোল্লা,মন্জুরুর রহমান মানিক, মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, ইয়াসিন আরাফাত, বিপলু আহমেদ, মাহবুবুর রহমান সুফিল ও সহকারি কোচ মাসুদ পারভেজ কায়সার আজ শুক্রবার নতুন করে জেনেছেন দুঃসংবাদ। প্রথম দফায় তাদের সবার রিপোর্টের ফলাফলই এসেছিল নেগেটিভ।

    বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে করোণাভাইরাস পরীক্ষার শেষে ছাড়পত্র মেলার পর তারা সবাই যোগ দিয়েছিলেন ক্যাম্পে। নতুন খবর পাওয়ার পর সবাই আইসোলেশনে চলে গেছে বলে জানিয়েছে বাফুফে।

    জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার আগেই নিজস্ব উদ্যোগেও করোনাভাইরাস পরীক্ষার নির্দেশনা দিয়েছিল বাফুফে। জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে সেই ফল নিয়েও। আক্রান্ত বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়রই দাবি করেছেন ব্যক্তিগতভাবে করানো পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছিল তাদের। দলের সহকারি কোচও মাসুদ পারভেজও সেই কথাই জানিয়েছেন, "আমাদের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ ধরেই গাজীপুরে পাঠানো হয়েছিল। এখন হঠাৎ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ফোন এসেছে। আমরা নাকি সবাই পজিটিভ! আপাতত সবাই যার যার রুমে আইসোলোশনে আছি।"

    এই জটিলতার ভেতরই আগামীকাল বাকি খেলোয়াড়দের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করানো হবে। বাফুফে অবশ্য নতুন করে খেলোয়াড় ও স্টাফদের দ্বিতীয় দফায় পরীক্ষা করানোর উদ্যোগ নিয়েছে। সোমবার দলের সব খেলোয়াড়কে আরও একবার করোনাভাইরাস পরীক্ষার ভেতর দিয়ে যেতে হবে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন