• বিশ্বকাপ বাছাই
  • " />

     

    সার্ভারের 'জটিলতায়' করোনা পজিটিভরাও যোগ দিয়েছিলেন জাতীয় দলের ক্যাম্পে

    সময়মতো টেক্সট ম্যাসেজ না পাওয়ায় ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার পরও ৭ জন খেলোয়াড়ের করোনা রিপোর্ট নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছিল। বাফুফের মেডিকেল টিমের সদস্য ডাক্তার আলী ইমরান আজ এক সংবাদসম্মেলনে জানিয়েছেন এসব তথ্য।  আগের দিন বাফুফে নিশ্চিত করেছিল মোট ২৪ জন খেলোয়াড়ের ভেতর ১৮ জনই করোনায় আক্রান্ত। 

    প্রথম দফায় খেলোয়াড়, কোচ ও স্টাফ মিলিয়ে মোট ২০ জনের ভেতর ৩ জনের শরীরের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছিল। তাদের আইসোলেশনে রেখে বাকিরা গাজীপুরের অনুশীলন ক্যাম্পে যোগ দেন। পরদিন তাদের সঙ্গে যোগ দেন আরও ৫ জন। তখনও মোট ১১ জনের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানা গিয়েছিল। কিন্তু শুক্রবার নতুন তথ্যের পর মাথায় একরকম বাজ পড়ার উপক্রম হয়েছে। প্রথমদিনের ২০ জনের ভেতর ছিলেন আরও মোট ৮ জন করোনা পজিটিভ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠানো তথ্য প্রযুক্তিগত জটিলতায় দুইদিন পর জানতে পেরেছে বাফুফে।

    ডাক্তার ইমরান বলছেন, দিনের পরীক্ষার ফল দিনেই দেওয়া হয় বলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়কে বেছে নিয়েছিলেন তারা। তার মতে করোনা পরীক্ষার ফলে সমস্যা নেই, বিভ্রাটটা তথ্য জানানো নিয়ে, "একমাত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা করার পর পজিটিভ রিপোর্টগুলো দ্রুততম সময়ে জানিয়ে দেওয়া হয়। প্রথমদিন আমাদের ৩ জন খেলোয়াড়ের করোনা পজিটিভের ফল আসে। প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে বাকি ফলগুলো আমাদের কাছে পৌঁছায়নি। পরে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের কাছ থেকে আমরা জানতে পারি, আমাদের ৭ জন খেলোয়াড় ও একজন কোচ করোনায় আক্রান্ত।"

    ক্যাম্পে যোগ দেওয়া সদস্যরা দুইদিন সেখানে অবস্থান করেছেন। এমনিতেই খেলোয়াড়দের ৭৫ শতাংশ করোনা পজিটিভ।  এতে করে যারা সুস্থ্য ছিলেন তারাও এখন শঙ্কায় পড়ে গেছেন নতুন করে। ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার আগে খেলোয়াড়দের ব্যক্তি উদ্যোগে পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দিয়েছিল বাফুফে। সেই পরীক্ষায় নেগেটিভ ফল পাওয়া অনেকেই বাফুফের করোনা পরীক্ষায় ফল পেয়েছেন উলটো। ডাক্তার ইমরান বলছেন, এখন আর পরিস্থিতি আন্দাজ করার উপায় নেই, "কে শঙ্কায় আর কে সঙ্কটে সেটা তা কেউ জানে না।" 

    আগামীকাল দলের শেষ দফায় দলের বাকিদের করোনা পরীক্ষা হওয়ার কথা রয়েছে। তবে বাফুফে সিদ্ধান্ত নিয়েছে নতুন করে স্কোয়াডের সব খেলোয়াড়, কোচ ও স্টাফদের শরীরের করোনা পরীক্ষা করানোর, "সোমবার আমরা দুইটি আলাদা প্রতিষ্ঠানের সাহায্যে সবার করোনা পরীক্ষা করাব আবার। একই দিনে দুই দফা করোনা টেস্টের ফল দেখে এরপর আমরা সিদ্ধান্ত নেব। দুইবার কারও পজিটিভ আসলে বা নেগেটিভ আসলে তার ওপর বিবেচনা করে পুরো পরিস্থিতি বিবেচনা করা হবে।" - জানিয়েছেন  ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ।
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন