• বিশ্বকাপ বাছাই
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    কিক অফের আগে : তিতের পঞ্চাশতম ম্যাচেও প্রতিপক্ষ সেই পেরু

    কবে, কখন
    পেরু-ব্রাজিল
    বিশ্বকাপ বাছাই
    ১৪ অক্টোবর, সকাল ৬.০০
    এস্তাদিও নাসিওনার দে লিমা


    পেরুর সঙ্গে ব্রাজিল কোচ তিতের সম্পর্কটা একটু অন্যরকম। ২০১৬ কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল পেরুর কাছে হারার পরই দলের দায়িত্ব পেয়েছিলেন তিতে। তিন বছরের মাথায় কোপা আমেরিকার ফাইনালে সেই পেরুকে হারিয়েই নিজের কোচিং ক্যারিয়ারের সেরা পুরস্কারটা জিতেছিলেন ৫৯ বছর বয়সী। এবার সেই পেরুর বিপক্ষে ব্রাজিলের কোচ হিসেবে পঞ্চাশতম ম্যাচে ডাগ আউটে থাকবেন তিনি।

    আগের ৪৯ ম্যাচে তিতের রেকর্ড দুর্দান্ত। ব্রাজিল তার সময়ে হেরেছে মাত্র ৪ ম্যাচ। প্রতিযোগিতামূলক টুর্নামেন্টে ব্রাজিলের একমাত্র হারটি ২০১৮ বিশ্বকাপে, কোয়ার্টার ফাইনালে বেলজিয়ামের বিপক্ষে। বাকি তিনটি হারই প্রীতি ম্যাচে। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এখনও তিতের ব্রাজিলকে হারাতে পারেনি কোনো দল। পেরুর জন্য ম্যাচটা হয়ত প্রতিশোধের, কিন্তু কাজটা তাই বহুগুণে কঠিন।
     


    বলিভিয়াকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে ব্রাজিল বিশ্বকাপ বাছাই শুরু করেছে ব্রাজিলিয়ান ছন্দে। নেইমার, ফিলিপ কৌতিনহো, রবার্তো ফিরমিনোর আক্রমণভাগ ছিল দুর্দান্ত। মিডফিল্ডেও ছিল যথেষ্ট সমন্বয়। প্রায় এক বছর পর আন্তজার্তিক ফুটবলে ফিরলেও তিতের দলের খেলায় মরচে পড়েনি এতোটুকুও। বলিভিয়া ম্যাচে নেইমারকে নিয়ে শঙ্কা ছিল, শঙ্কা কাটিয়ে নেইমার শেষ পর্যন্ত খেলেছিলেন। ব্রাজিলের প্রায় সব গোলেও অবদান ছিল তার। এবার পেরুর বিপক্ষে তিতের সেরকম কোনো দুশ্চিন্তাও নেই। পুরোপুরি মাঠের খেলাতেই মনোযোগ রাখার সুযোগ পাচ্ছেন তিতে।

    বাছাইপর্বের শুরুটা পেরুর জন্যও মন্দ হয়নি। প্যারাগুয়ের মাঠে ২-২ গোলে ড্র করে ফিরেছে তারা। পেরুর কোচের পদে এখনও আছেন সেই রিকার্ডো গারেচাই। আর্জেন্টাইন কোচের হাত ধরে ২০১৮ বিশ্বকাপে বাছাই করার পর পেরু উঠেছিল কোপার ফাইনালেও।  স্বাগতিকদের কাছে ফাইনাল হারলেও মাস দুয়েক পর আরেক প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিলকে হারিয়েও দিয়েছিল পেরু। তিতের ব্রাজিলকে যে গুটি কয়েক কোচ হারাতে পেরেছেন তাদের ভেতর তাই আছেন গারেচাও।

    লিমায় অবশ্য ম্যাচটা কেমন হতে যাচ্ছে সেটা সহজেই অনুমান করা যায়। ব্রাজিলের আক্রমণের ঢেউ আছড়ে পড়বে পেরুর রক্ষণে। সামাল দিতে পেরু ডিফেন্ডারদের খেলতে হবে নিখুঁত ম্যাচ। পেরুর রক্ষণের মূল স্তম্ভ বোকা জুনিয়র্স ডিফেন্ডার কার্লোস জামব্রানো। ব্রাজিলের বিপক্ষে দলের বাকি ডিফেন্ডারদের তিনি কতোখানি অনুপ্রাণিত করতে পারেন সেটাই হয়ত ভাগ্য গড়ে দেবে ম্যাচে।

    তবে নেইমারদের কাজটা খুব একটা সহজ হওয়ার কথা নয়। পেরু শরীরনির্ভর ফুটবলে অভ্যস্ত। দক্ষিণ আমেরিকায় সম্ভবত পেরুর মতো আর কোনো দল এতোখানি শরীরনির্ভর ফুটবল খেলে না। সেক্ষেত্রে কাসেমিরোদের মিডফিল্ডকে ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে। ফাবিনহো এই ম্যাচে বড় ভূমিকা রাখতে পারেন। যদিও বলিভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে মাঠেই নামা হয়নি লিভারপুল মিডফিল্ডারের।   

    দলের খবর
    বলিভিয়ার পর পেরুর ম্যাচে এডারসনকে গোলবারের নিচে দেখার সম্ভাবনা নেই। লিভারপুল গোলরক্ষক অ্যালিসনের চোটের পর দলে ডাক পেয়েছেন। অ্যালিসনের অনুপস্থিতিতে তিতের প্রথম পছন্দ পালমেইরাস গোলরক্ষক ওয়েভারটন। পেরুর বিপক্ষে তিতের একাদশে বড়সড় পরিবর্তন আসার সম্ভাবনাও নেই।

    সম্ভাব্য একাদশ
    পেরু

    গালেসে, আদভিনকুলা, জামব্রানো, আবরাম, ট্রাউকো, তাপিয়া, কারিহো, আকুইনো, ইয়োতুন, কিউয়েভা, রুইডিয়াজ

    ব্রাজিল
    ওয়েভারটন, দানিলো, থিয়াগো সিলভা, মার্কিনিয়োস, রেনান লোদি, ডগলাস লুইজ, কাসেমিরো, কুতিনহো, এভারটন, ফিরমিনো, নেইমার  

    হেড টু হেড
    সবমিলিয়ে ৪৭ দেখায় ব্রাজিল জিতেছে ৩৩ বার। পেরু ব্রাজিলকে হারাতে পেরেছে মাত্র ৫ বার। গত বছর সেপ্টেম্বরে শেষ দেখায় ব্রাজিলকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল পেরু। লিমায় বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দুই দলের শেষ ম্যাচে ব্রাজিল জিতেছিল ২-০ তে।

    প্রেডিকশন
    পেরু ০- ৩ ব্রাজিল  

     

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন