• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    কোচের সঙ্গে দ্বন্দ্বের খবর অস্বীকার করলেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ

    টটেনহামের বিপক্ষে প্রিমিয়ার লিগে ৬-১ গোলে হারের পর ম্যান ইউনাইটেড ড্রেসিং রুমে কোন্দলের খবর প্রকাশ করেছিল ব্রিটিশ মিডিয়া। ম্যান ইউনাইটেডের ইতিহাসের অন্যতম বড় হারের সেইদিন ম্যাচের মাঝ বিরতিতেই ড্রেসিং রুমে খেলোয়াড়দের বেধে গিয়েছিল বলে শোনা গেছে। প্রথমার্ধ শেষে ৪-১ গোলে পিছিয়ে ছিল তারা। আর ম্যান ইউনাইটেডের পর্তুগিজ মিডফিল্ডার ব্রুনো ফার্নান্দেজকে সেই ম্যাচে প্রথমার্ধ শেষে উঠিয়ে নেওয়ায় কোচ ওলে গানার সোলশারের সঙ্গে তার বাকবিতণ্ডা হয়েছে বলেও খবর বেরিয়েছিল। তবে ফার্নান্দেজ কোন্দলের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

    নেশনস লিগে সুইডেনের বিপক্ষে পর্তুগালের বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন ফার্নান্দেজ। স্পোর্টটিভির সঙ্গে সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, “অনেকেই এটা নিয়ে অনেক কিছু বলছে। শুরুতে মিডিয়া দলের মধ্যে সমস্যা নিয়ে লিখেছে, সেটায় খুব একটা কাজ হয়নি। তারপর এক সতীর্থের (ভিক্টর লিন্ডেলফ) সঙ্গে সমস্যার কথা বলেছে, এখন বলছে কোচের সাথে সমস্যা হয়েছিল। তারা দলকে অস্থিতিশীল করতে চায়।”

    ম্যাচের প্রথম মিনিটেই পেনাল্টি থেকে গোল করে ইউনাইটেডকে এগিয়ে দিয়েছিলেন ফার্নান্দেজ। প্রথমার্ধ শেষে তাকে ট্যাকটিকাল কারণে উঠিয়ে নেওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন তিনি, “অসত্য খবর প্রচার হচ্ছে। আমাকে আসলে ট্যাকটিকাল কারণে উঠিয়ে নেওয়া হয়েছিল। কোচ আমাকে বলেছিলেন, এই খেলা শেষ, সামনে আরও খেলা আছে। আমি এই সিদ্ধান্তে খুশি না হলেও বিষয়টি বুঝেছিলাম।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন