• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    কিক অফের আগে : ওল্ড ট্রাফোর্ড বলেই ভয় ম্যান ইউনাইটেড আর চেলসির

    কবে, কখন

    ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড-চেলসি

    প্রিমিয়ার লিগ

    ২৪ অক্টোবর, রাত ১০.৩০


    ওল্ড ট্রাফোর্ডে মৌসুমে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি হচ্ছে দুই প্রিমিয়ার লিগ জায়ান্ট ম্যান ইউনাইটেড এবং চেলসি। কী অদ্ভুত সময় কাটাচ্ছে ওলে গানার সোলাশারের ম্যান ইউনাইটেড! প্রথমে দলবদলের বাজারে ব্যর্থতা, এরপর টটেনহামের কাছে ঘরের মাঠে ৬-১ গোলের বিশাল হার। তবে এরপরই নিউক্যাসলের বিপক্ষে প্রিমিয়ার লিগে জয় এবং প্যারিসে গিয়ে পিএসজিকে হাতে হারিকেন ধরিয়ে আবারও আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে উঠে যাওয়া।

    চেলসির বিপক্ষে মাঠে নামার আগে ফর্মের দিক দিয়েও অনেক আত্মবিশ্বাসী অবস্থায় রয়েছে ম্যান ইউনাইটেড। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে শেষ ছয় ম্যাচের পাঁচটিতেই জিতেছে তারা। তবে পাঁচ জয়ের সবকটিই এসেছে প্রতিপক্ষের মাঠে। নিজেদের সবশেষ ম্যাচে টটেনহামের কাছে ৬-১ গোলে হেরেছিল তারা। প্রিমিয়ার লিগে এই মৌসুমে এখনো ঘরের মাঠ থেকে কোনো পয়েন্ট পাওয়া হয়নি তাদের।

    টটেনহামের আগে ঘরের মাঠে মৌসুমের প্রথম প্রিমিয়ার লিগ ম্যাচে ক্রিস্টাল প্যালেসের কাক্সছে ৩-১ গোলে হেরে গিয়েছিল ম্যান ইউনাইটেড। ১৯৩০-৩১ মৌসুমের পর আর এখনো ঘরের মাঠে মৌসুমের প্রথম তিন ম্যাচে হারের মুখ দেখেনি রেড ডেভিলরা। সেবার লিগের তলানিতে থেকে মৌসুম শেষ করেছিল তারা। আর মৌসুমের যেকোনো পর্যায়ে ওল্ড ট্রাফোর্ডে টানা তিন ম্যাচে হেরেছিল শেষ ১৯৭৯ সালে।

    অন্যদিকে চ্যাম্পিয়নস লিগে সেভিয়ার সঙ্গে ড্র করে নড়বড়ে আত্মবিশ্বাস নিয়েই ওল্ড ট্রাফোর্ডে আসছে ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের চেলসি। ম্যান ইউনাইটেডের হোম রেকর্ড যেমন ছন্নছাড়া, একইভাবে চেলসির অ্যাওয়ে রেকর্ডের এবার বেহাল অবস্থা। গত মৌসুমের শুরু থেকে প্রিমিয়ার লিগে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি অ্যাওয়ে গোল হজম করা দল হচ্ছে চেলসি (৪২ গোল)। প্রিমিয়ার লিগে এখন পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচের দুটিতে ৩-৩ গোলে ড্র করেছে চেলসি, ওয়েস্ট ব্রম এবং সাউদাম্পটনের বিপক্ষে। চেলসির রক্ষণের ভঙ্গুর অবস্থা এতেই প্রমাণ হয়।

    ম্যান ইউনাইটেডের গতিময় আক্রমণভাগের বিপরীতে তাই চেলসির রক্ষণকে হিমশিম খেতে হতে পারে। এছাড়া দুর্বল রক্ষণের কারণে এই মৌসুমে লিড নিয়েও শান্তিতে থাকতে পারছে না চেলসি। ২০২০ সালে প্রিমিয়ার লিগে শুধু আর্সেনাল ম্যাচে উইনিং পজিশন থেকে চেলসির চেয়ে বেশি পয়েন্ট হারিয়েছে। ওল্ড ট্রাফোর্ডে তাই রাতে এক ভিন্ন ধরনের দ্বৈরথ দেখা যেতে পারে, একদিকে ম্যান ইউনাইটেডের বাজে হোম রেকর্ডের বিপরীতে চেলসির ভুলের যাওয়ার মতো অ্যাওয়ে রেকর্ড।

    দলের খবর

    চোটের কারণ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এই ম্যাচে ডিফেন্ডার এরই বায়িকে পাচ্ছে না। তার জায়গায় যথারীতি অ্যাক্সেল তুয়ানজেবেকে দেখা যাবে। অন্যদিকে আক্রমণভাগে টটেনহ্যামের বিপক্ষে লাল কার্ড দেখে তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞার মুখে থাকা অ্যান্থনি মার্শিয়ালকেও এই ম্যাচে পাচ্ছেন না সোলশার। আর মধ্যমাঠে পগবার চেয়ে ফ্রেড-ম্যাকটমিনেতেই আস্থা রাখতে পারেন ম্যান ইউনাইটেড কোচ।

    চেলসির তেমন কোনো চোট সমস্যা নেই। দ্রুত চোট থেকে সেরে উঠে ল্যাম্পার্ডের কপাল থেকে চিন্তার ভাজ সরিয়েছেন গোলরক্ষক মেন্ডি।

    সম্ভাব্য একাদশ

    ম্যান ইউনাইটেড একাদশ

    ডি গিয়া, ওয়ান-বিসাকা, তুয়ানজবে, মাগুয়ের, তেলেস, ম্যাকটমিনে, ফ্রেড, মাতা, ফার্নান্দেজ, রাশফোর্ড, কাভানি

    চেলসি একাদশ

    মেন্ডি, জেমস, সিলভা, জুমা, চিলওয়েল, জর্জিনহো, কান্তে, মাউন্ট, হাভার্টজ, পুলিসিচ, ভার্নার

    প্রেডিকশন

    ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ২ - ২ চেলসি

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন