• বিশ্বকাপ বাছাই
  • " />

     

    পরিবারের কথা বলতে গিয়ে কেঁদে ফেললেন ইব্রা

    পরিবারের কথা বলতে গিয়ে কেঁদে ফেললেন ইব্রা    

    পাঁচ বছর পর জাতীয় দলে ফিরলেন। ইব্রাহিমোভিচের জন্য সেটা কতটা আবেগের, সেটার প্রমাণ পাওয়া গেল সংবাদ সম্মেলনে। দুই ছেলের কথা বলতে গিয়ে চোখের জল বাঁধ মানল না তার। 

    চমকে দেওয়ার মতো ঘোষণাটা কয়েক দিন আগেই দিয়েছিলেন ইব্রা। সেই ৩৪ বছর বয়সে সুইডেনের জার্সিটা তুলে রেখেছিলেন। ৪০ ছুইঁ ছুইঁ বয়সে এসে আবার ঘোষণা দিলেন জাতীয় দলে ফেরার। ২০২২ বিশ্বকাপের জন্য বাছাইপর্ব শুরু হচ্ছে, সুইডেনকে এই লড়াইয়ের জন্য সাহায্য করতে আবার ফিরছেন মাঠে। এসি মিলানের হয়ে এই মৌসুমে দেখাচ্ছেন, ফুটবলকে আরও অনেক কিছু দেওয়ার আছে তার।

    কাল সংবাদ সম্মেলনে ফেরার পর প্রথম সংবাদ সম্মেলন ছিল ইব্রার। সেখানেই জানতে চাওয়া হয়েছিল ইব্রার কাছে জাতীয় দলে ফেরার পর দুই ছেলের অনুভূতি কেমন ছিল। ১৪ বছরের ম্যাক্সিমিলিয়ান ও ১২ বছরের ভিনসেন্টের কথা বলতে গেলে গলা ধরে এলো ইব্রার। বললেন, এবার ক্যাম্পে আসার পর কেঁদে দিয়েছে ভিনসেন্ট।

    তবে ইব্রা জানেন, এবারের চ্যালেঞ্জটা আরও বড়। কোচ অ্যান্ডারসেনের সাথে সম্পর্কটা ভালো ছিল না তার, তবে সেসব ভুলে দুজন আবার এক হয়েছেন দেশের জন্য। ইব্রা এখন তাকাচ্ছেন সামনের দিকে, 'কোচ একা কিছু করতে পারবে না, একজন খেলোয়াড়ও একা পারবে না। সবাইকে মিলেই কাজ করতে হবে। জাতীয় দলের হয়ে খেলাটা অনেক বড় সম্মানের, তবে ফল না পেলে সবই অর্থহীন। সবাই মিলে সেই কাঙ্খিত ফলটাই এনে দিতে হবে আমাদের।'

    এবারের বিরতিতে জর্জিয়া ও কসোভোর সাথে প্রথম দুইটি বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচ খেলার পর এস্তোনিয়ার সাথে প্রীতি ম্যাচ খেলবে সুইডেন। 

     

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন