• বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর ২০২১
  • " />

     

    নেট সেশন: সিরিজ জয়ের সম্ভাবনার আগে আলোচনায় পাল্লেকেলের উইকেট

    নেট সেশন: সিরিজ জয়ের সম্ভাবনার আগে আলোচনায় পাল্লেকেলের উইকেট    

    বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর, ২০২১
    ২য় টেস্ট

    কবে, কখন
    ২৯ এপ্রিল-৩ মে
    বাংলাদেশ সময় ১০.৩০ (১০৩০)


    পেস? স্পিন? নিস্প্রাণ, ব্যাটিং-সহায়ক, আগেরটির মতো? 

    দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর আগে নিশ্চিতভাবেই আলোচনার অন্যতম বিষয় পাল্লেকেলের উইকেট। শ্রীলঙ্কার মাটিতে উইকেট হবে স্পিন-সহায়ক, প্রায় চিরায়ত এ ব্যাপার থেকে স্বাগতিকরাই সরে এসেছিল তাদের স্পিন-ডিপার্টমেন্টের ‘দূর্বলতা’র কারণে। তবে প্রথম টেস্টের উইকেটে পেস বা স্পিনার- কোনো ধরনের বোলারদের জন্যই ছিল না তেমন কিছু। প্রথম ইনিংসে দুই দলের ব্যাটিং-ই মোটামুটি নিশ্চিত করেছিল ড্র। তামিম ইকবাল, নাজমুল হোসেন শান্ত বা মুমিনুল হক, ওদিকে লাহিরু থিরিমান্নে, দিমুথ করুনারত্নে, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাদের থাকার কথা তাই আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে। 

    তবে দ্বিতীয় টেস্টের আগে শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক করুনারত্নে যা বলছেন, তাতে স্পিন-সহায়ক উইকেটে ফিরে যাচ্ছে তাদের কৌশল। ‘ফিফটি-ফিফটি উইকেট, যা প্রথম কদিন ব্যাটসম্যান এবং পরের কয়েকদিন স্পিনারদের সহায়তা করবে’, করুনারত্নে বলেছেন এমন। বাংলাদেশ হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো অবশ্য ম্যাচের আগেরদিনের আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে উইকেট নিয়ে তেমন কিছু বলতে পারলেন না, শুধু বললেন, “ভাল উইকেট”। এ ‘ভাল’ বলতে স্বাভাবিকভাবেই ব্যাটিংয়ের জন্য ভাল বুঝানোর কথা তাদের। 

    টিম কম্বিনেশন নিয়েও করুনারত্নে বলেছেন, তিন স্পিনার-দুই পেসার নিয়ে নামবেন তারা। তবে টেস্টের আগেরদিন স্কোয়াড ঘোষণা করা বাংলাদেশে আগের ম্যাচ থেকে নেই পরিবর্তন। ফলে স্পেশালিস্ট স্পিনার হিসেবে আছেন শুধু তাইজুল ইসলাম ও মেহেদি হাসান মিরাজই। সেক্ষেত্রেও ৬ ব্যাটসম্যান-৫ বোলারের কম্বিনেশন রাখবে কিনা বাংলাদেশ, দেখার বিষয় সেটি। 

    এমনিতে এ টেস্ট বাংলাদেশকে হাতছানি দিয়ে রেখেছে দেশের বাইরে দ্বিতীয়বারের মতো সিরিজ জেতার। ২০০৯ সালে এখন পর্যন্ত একমাত্র অ্যাওয়ে সিরিজ জিতেছিল তারা। এর আগে শ্রীলঙ্কায় তাদের একমাত্র জয়টিও এসেছিল সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে, ২০১৭ সালে। 


     
    রঙ্গমঞ্চ
    পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম

    দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর আগেরদিন আইসিসি প্রথম টেস্টের পিচকে দিয়েছে ডিমেরিট পয়েন্ট, ‘গড়পড়তার চেয়েও বাজে’ উল্লেখ করে। ফলে দ্বিতীয় টেস্টে স্পিন-সহায়ক উইকেটের সম্ভাবনা বেড়ে যাচ্ছে আরও। ২০১২ সালের পর প্রথমবার এ মাঠ দেখেছে ড্র। 

    যাদের ওপর চোখ

    তামিম ইকবাল

    প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি পাননি আলগা শট খেলে, দ্বিতীয় ইনিংসে সেটি পাওয়া হয়নি বৃষ্টি এসে আগেভাগেই বাগড়া বাধায়। তবে ব্যাটিং-সহায়ক উইকেটেও তামিম ইকবাল ব্যাটিং করেছিলেন ভিন্ন ধাঁচের। তার দুটি ছাড়াও ম্যাচে ফিফটি-পেরুনো ইনিংস ছিল আরও ৭টি, তবে তার মতো স্ট্রাইক রেট ছিল না কারও। দ্বিতীয় টেস্টের সম্ভাব্য বদলে যাওয়া উইকেটে দেখা যাবে কোন তামিমকে? 


    দিমুথ করুনারত্নে

    শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক হিসেবে চতুর্থজন হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন, খেলেছেন শ্রীলঙ্কার ইতিহাসের দশম সর্বোচ্চ ইনিংস। সিরিজ-নির্ধারণী ম্যাচে আবারও জ্বলে উঠবেন করুনারত্নে? 

    সম্ভাব্য একাদশ

    লাহিরু কুমারা ছিটকে গেছেন প্রথম টেস্ট থেকেই, ফলে একটি পরিবর্তন অবধারিত শ্রীলঙ্কার। তার জায়গায় একজন স্পিনার খেলানোর সম্ভাবনা বেশি তাদের। সে জায়গায় আসতে পারেন বাঁহাতি রিস্টস্পিনার লাকশান সান্দাকান বা অফস্পিনার রমেশ মেন্ডিস। 

    বাংলাদেশের ক্ষেত্রেও পরিবর্তন আসতে পারে পেসারদের ক্ষেত্রে, শেষ পর্যন্ত দুই পেসার নিয়ে নামলে বাড়তি ব্যাটসম্যান হিসেবে মোহাম্মদ মিঠুনকেও দেখা যেতে পারে একাদশে। ওপেনিংয়ে তামিমের সঙ্গী হবেন সাইফ হাসান, সেটি নিশ্চিত করেছেন রাসেল ডমিঙ্গো। 

    বাংলাদেশ 

    তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অ), মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহি/শরিফুল ইসলাম/মোহাম্মদ মিঠুন, এবাদত হোসেন, তাসকিন আহমেদ


    শ্রীলঙ্কা

    দিমুথ করুনারত্নে, লাহিরু থিরিমান্নে, ওশাদা ফার্নান্ডো, পাথুম নিসাঙ্কা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা, নিরোশান ডিকওয়েলা, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, সুরাঙ্গা লাকমাল, লাকশান সান্দাকান/রমেশ মেন্ডিস, ভিশ্ব ফার্নান্ডো

    সংখ্যার খেলা 

    প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডে মুশফিকুর রহিমকে টপকে গিয়েছিলেন তামিম ইকবাল। সে ইনিংসেই সেটি আবার নিজের করে নিয়েছিলেন মুশফিক। দ্বিতীয় ইনিংসে আবারও শীর্ষস্থানে এসেছেন তামিম, মুশফিক ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাননি। প্রথম টেস্ট শুরুর আগে তামিমের রান ৪৬৭২, মুশফিকের ৪৬০৫। 


    আমরা সিরিজ জিততে চাই। শ্রীলঙ্কায় সিরিজ জেতা বাংলাদেশের জন্য দারুণ এক অর্জন হবে। বিদেশের মাটিতে সিরিজ জেতার লক্ষ্যেই এগুতে চাই আমরা। পাঁচদিন ধরেই ভাল খেলতে হবে (সেজন্য)। শ্রীলঙ্কাকে তাদের মাটিতে হারানো কঠিন। আমাদের নজর টেস্ট ভালভাবে শুরু করে, সেশন ধরে ধরে এগুনো। 

    রাসেল ডমিঙ্গো, বাংলাদেশ হেড কোচ


    আমরা জেতার জন্যই খেলি। ফলে এই ম্যাচ ও সিরিজ জিততে নিজেদের সেরাটা দিব আমরা। আগের পিচ থেকে আমরা যা প্রত্যাশা করেছিলাম, সেটি পাইনি। বোলাররা ম্যাচ জেতানোর জন্য ২০ উইকেট নেওয়ার মতো সহায়তা পায়নি। এমন উইকেটে পেসারদের মানিয়ে নেওয়া কঠিন। কারণ সব উইকেটি ব্যাটসম্যানদের সহায়তা করে। ফলে আমরা স্পিনারদের নিয়েই সামনে এগুনোর পরিকল্পনা করছি। ব্যাটসম্যানদের আত্মবিশ্বাস ভাল আছে, কারণ রান পেয়েছে তারা। স্পিনারদের সমর্থন করব তাই আমরা, ম্যাচ জেতার জন্য। 

    দিমুথ করুনারত্নে, শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন