• ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টি ২০২১
  • " />

     

    স্টাম্প উপড়ে ফেলার ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন সাকিব

    স্টাম্প উপড়ে ফেলার ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন সাকিব    

    ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে মেজাজ হারিয়ে স্টাম্পে লাথি মারা ও উপড়ে ফেলার ঘটনার পর ক্ষমা চেয়েছেন সাকিব আল হাসান। তার মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের অমন করা উচিৎ হয়নি, এবং যারা ঘরে বসে দেখেছেন, তাদের জন্য ‘ম্যাচ মাটি দেওয়ার’ কথা বলে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। 

    শুক্রবার আবাহনীর বিপক্ষে ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হয়ে দুইবার নন-স্ট্রাইক প্রান্তের স্টাম্পে আঘাত করেছেন মোহামেডান অধিনায়ক সাকিব। প্রথমবার মুশফিকুর রহিমের বিপক্ষে এলবিডব্লিউর আবেদন আম্পায়ার ইমরান পারভেজ নাকচ করার পর, দ্বিতীয়বার বৃষ্টিতে কাভার ডাকার কারণে- পরেরবার আম্পায়ার ছিলেন মাহফুজুর রহমান।



    “প্রিয় ভক্ত ও অনুসারীগণ, আমার আজকের আচরণে আপনাদের ম্যাচের আনন্দ মাটি হয়েছে, বিশেষ করে যারা ঘরে বসে ম্যাচটি দেখছিলেন। মেজাজ হারিয়ে ফেলার জন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত”, বলেছেন সাকিব। “আমার মতো একজন অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ের কাছ থেকে এরকম ব্যবহার অপ্রত্যাশিত, তবে দুঃখজনক হলেও সত্য যে ম্যাচে যখন পরিস্থিতি প্রতিকূলে যায় তখন এরকম অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে যায়।”

    “মানুষ মাত্রই ভুল করে আর আমার এই ভুলের জন্য আমি দল, ম্যানেজমেন্ট, টুর্নামেন্টের কর্মকর্তা ও আয়োজক কমিটির কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। ভবিষ্যতে আশা করি এরকম ভুল আর হবে না। ধন্যবাদ! সবার জন্য ভালবাসা রইল।”

    এদিকে আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারির সঙ্গে কথা বলেই সাকিবের এ ঘটনার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের গভর্নিং বডি সিসিডিএমের চেয়ারম্যান কাজি ইনাম আহমেদ, “'আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে অনেক কিছুই ঘটে থাকে। আজকে এমনই ঘটনা আমরা দেখলাম। যা ফেসবুক লাইভ., ইউটিউবের মাধ্যমে সবাই দেখেছে। সাকিবের ঘটনাটি দুর্ভাগ্যজনক। আমরা আশা করি এমন ঘটনা ঘটবে না। তারা পেশাদার ক্রিকেটার।” 

    “আপনারা জানেন এটা আইসিসির স্বীকৃতি ম্যাচ। এসব দেখার জন্য আমাদের প্যানেল আছে। এটা দেখে থাকেন বিসিবির আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারি। তাদের রিপোর্টের ভিত্তিতে সাকিবের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে”, বলেছেন ইনাম। 
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন