• " />

     

    আম্পায়ারের চোখে বল মেরে বহিষ্কার

    ডেভিস কাপের প্রথম রাউন্ডে ব্রিটেন-কানাডা ম্যাচের ৩য় সেট। ব্রিটেনের কাইলি এডমুন্ড ২-১ গেমে এগিয়ে গেলেন। পয়েন্ট হারিয়ে নিজের ক্ষোভ ধরে রাখতে পারেননি কানাডার ডেনিস শাপোভালোভ। নিজের হাতে থাকা বলটা সজোরে আঘাত করে র‍্যাকেট দিয়ে। বেরসিক বলটা কোথায় গিয়ে লেগেছে জানেন? একেবারে চেয়ার আম্পায়ারের চোখে!

     

    শাপোভালোভ হয়তো কল্পনাই করেননি এরকম কিছু হতে পারে। উপস্থিত দর্শকরাও এই ঘটনায় রীতিমতো হতবাক! ঘটনার পরপরই বহিষ্কার হওয়া এই কানাডিয়ান তরুণ আম্পায়ার আরনাউদ গাভাসের অবস্থা দেখে কেঁদেই ফেলেছিলেন। পরবর্তীতে নিজের ওই আচরণের জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন, “আমি নিজের ওই কাজের জন্য খুবই দুঃখিত এবং লজ্জিত। আমি আমার দল এবং দেশের সম্মান নষ্ট করেছি। আম্পায়ারের কাছেও অনেকবার ক্ষমা চেয়েছি। ভবিষ্যতে আর কখনোই এরকম কিছু করবো না।”

     

     

    বাম চোখে আঘাত পাওয়া গাভাসকে সাথে সাথেই হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে আঘাত খুব একটা গুরুতর নয় বলেই জানিয়েছেন ডাক্তার। ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছে কানাডা দলের অন্যরাও। শাপোভালোভের বহিষ্কার হওয়ায় ব্রিটেনকেই জয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।


    ১৯৯৫ সালের উইম্বলডনেও ঘটেছিল এরকমই এক দুর্ঘটনা। সেবার রাগের মাথায় র‍্যাকেট ছুঁড়ে মেরেছিলেন টিম হেনম্যান। র‍্যাকেটের আঘাতে আহত হয়েছিল পাশে থাকা বলগার্ল। এই ঘটনার পর হেনম্যানকে বহিষ্কার করা হয়েছিল।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন