• আইপিএল ২০১৬
  • " />

     

    ইতিহাস গড়া হলো না পাঠানের

    ইতিহাসই গড়ে ফেলেছিলেন। প্রথম ভারতীয় হিসেবে বিদেশের টি-টোয়েন্টি লিগে খেলার অনুমতিও পেয়ে গিয়েছিলেন ইউসুফ পাঠান। কিন্তু সেই ইতিহাস আর গড়া হচ্ছে না পাঠান ভাইয়ের বড়দের। ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে বিসিসিআই এখন জানিয়ে দিয়েছে, পাঠানের অনুমতিপত্র বাতিল করা হয়েছে। হংকং লিগে কলুন ক্যান্টসনসের হয়ে আপাতত খেলা হচ্ছে না পাঠানের।

    কিন্তু অনুমতি দিয়েও দুই দিনের মধ্যে বিসিসিআই সেটা প্রত্যাহার করে নিল কেন? বিসিসিআই আনুষ্ঠানিকভাবে এ ব্যাপারে কিছু জানায়নি। তবে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, পাঠানকে অনুমতি দেওয়ার পরেই আরও ভারতীয় ক্রিকেটাররা বাইরের লিগে খেলার জন্য আবেদন ও তদবির করতে থাকে। শেষ পর্যন্ত বিসিসিআই পাঠানের আবেদনও নাকচ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

    সেক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠতেই পারে, শুরুতেই বা এই অনুমতি দেওয়া হলো কেন? বিসিসিআইয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পাঠানের সঙ্গে বোর্ডের কোনো চুক্তি ছিল না বলেই তাঁর কথা বিবেচনা করা হয়েছিল। তার ওপর এই মুহূর্তে আইপিএলের আগে সৈয়দ মুশতাক আলী টুর্নামেন্ট চলছে, সেখানেও পাঠানের নাম নেই। আর হংকংয়ের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টটাও ঠিক পুরোপুরি ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক টুর্নামেন্ট নয়। সেসবা কারণেই পাঠানকে অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন বিসিসিআই মনে করছে, একজনকে দিলে সেটা বাকিদের জন্য বাজে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকতে পারে। দীনেশ কার্তিকও ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলার জন্য আবেদন করেছিলেন, তাঁর আবেদনও নাকচ করে দেওয়া হয়েছে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন