• " />

     

    বাংলাদেশে আসছেন না স্টার্ক

    বাংলাদেশ সফরের বাকি এখনো দুই মাস। তবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ১৩ জনের দল ঘোষণা করে দিয়েছে আগেভাগেই। চোটের জন্য সেই দলে নেই মিচেল স্টার্ক। আর ভারতের বিপক্ষে আলো ছড়িয়েও জায়গা হয়নি স্টিভেন ও কিফের। অবশ্য আর ও এক দুজনের সেই দলে যোগ দেওয়ার দরজা খোলা রেখেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

    ভারত সফরেই চোট পেয়ে দল থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন। এরপর চ্যাম্পিয়নস ট্রফি দিয়েই আবার ফিরেছেন মাঠে। বাংলাদেশের বিপক্ষে.৪ উইকেটও নিয়েছিলেন। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার ফিজিও নিশ্চিত করেছেন, স্টার্ক এখনো আগের চোট থেকে পুরোপুরি সেরে ওঠেননি। বাংলাদেশ সফরে তাই থাকছেন না। সেপ্টেম্বরে ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডেকেই করছেন পাখির চোখ। আর এরপর তো অ্যাশেজের জন্য প্রস্তুতিই শুরু হয়ে যাবে। স্টার্ক না থাকায় অস্ট্রেলিয়ার পেস বোলিংয়ের জোয়ালটা থাকছে জশ হ্যাজলউড, প্যাট কামিন্স ও জেমস প্যাটিনসনের কাঁধে। দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে এ দলের সফরের পর চতুর্থ পেসার বেছে নেওয়া হতে পারে। 


    তবে ১৩ জনের দলে জায়গা পাননি ও'কিফ। ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে দারুণ করেও পরে আর সেরকম অবদান রাখতে পারেননি। এরপর মাতাল হয়ে রাজ্যদল নিউ সাউথ ওয়েলস থেকে নিষিদ্ধও হতে হয়েছে। মাঠেও সময়টা ভালো যায়নি। এবার দলেই জায়গা পাননি। নাথান লায়নের সঙ্গে স্পিনার হিসেবে সুযোগ পেয়েছেন অ্যাশেজে চমকে দেওয়া অ্যাশটন অ্যাগার। দলে আবার ফিরেছেন উসমান খাজা, সুযোগ পেয়েছেন দারুণ ফর্মে থাকা অলরাউন্ডার হিলটন কার্টরাইট।

     
    ১৩ জনের দলঃ স্টিভ স্মিথ (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার (সহ অধিনায়ক), প্যাট ক্যামিন্স, জশ হ্যাজলউড, জেমস প্যাটিনসন, হিলটন কার্টরাইট, অ্যাশটন অ্যাগার, নাথান লায়ন, উসমান খাজা, পিটার হ্যান্ডসকম্ব, ম্যাট রেনশ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, ম্যাথু ওয়েড। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন