• বাংলাদেশের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
  • " />

     

    অঁরির ওই হ্যান্ডবল ফিরে এলো বেলফাস্টে

    থিয়েরি অঁরির ওই হ্যান্ডবল-বিভীষিকা হয়তো কোনোদিনই ভুলতে পারবে না আয়ারল্যান্ড। আট বছর আগে অঁরির ওই হ্যান্ডবল-গোল ফ্রান্সকে নিয়ে গিয়েছিল বিশ্বকাপে। এবার প্রতিবেশী উত্তর আয়ারল্যান্ডকেও সেই হ্যান্ডবল-দুর্ভাগ্যের জন্য অনেক দিন আফসোস করতে হবে। সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচে যে বিতর্কিত ওই হ্যান্ডবলের গোলেই প্রথম লেগে হেরে পিছিয়ে পড়েছে!

    সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচের তখন ৫৮ মিনিট। প্রথমার্ধে কোন দলই গোল পায়নি, তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই সুইসরা গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে। ৫৮ মিনিটে বক্সের ঠিক বাইরে থেকে দারুণ একটা ভলি করেছিলেন জেরদান শাকিরি। সেটা বক্সের একটু ভেতরে দাঁড়িয়ে থাকা করি ইভান্সের হাতে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে যায়। নর্দার্ন আইরিশরা হতভম্ব হয়ে দেখলেন, রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়ে দিয়েছেন। অথচ শাকিরির ভলিটা কিছু বুঝে ওঠার আগেই লেগে যায় ইভান্সের বাহুতে। শেষ পর্যন্ত রিকার্ডো রদ্রিগেজের গোলেই এগিয়ে যায় সুইজারল্যান্ড। গোলের পর সুইসদের উদযাপনই বলে দিচ্ছিল এই গোল তাদের জন্য কতটা মূল্যবান।

    কাল বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের আরেক ম্যাচে রাশিয়ায় বলতে গেলে এক পা দিয়েই রেখেছে ক্রোয়েশিয়া। প্রথম লেগে গ্রিসকে ৪-১ গোলে হারিয়ে প্রায় নিশ্চিত করে রেখেছে বিশ্বকাপের টিকেট। ১৩ মিনিটেই শুরুটা করে ক্রোয়েশিয়া। গ্রিক গোলরক্ষক একটা পাস ঠিকঠাক নিয়ন্ত্রণ করতে না পারায় বলটা পেয়ে গিয়েছিলেন নিকো কালিনিচ। কিন্তু গোলরক্ষক তাঁকে ফেলে দেওয়ায় পেনাল্টি পায় ক্রোয়েশিয়া। সেটি থেকে গোল করে এগিয়ে দেন লুকা মদ্রিচ।  

    ৬ মিনিট পর আবার এগিয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। এবার কালিনিচ নিয়েই ফ্লিক করে এগিয়ে দেন দলকে। ৩০ মিনিটে সক্রেটিস পাপাস্থোপুলস গোল করে একটি আশা জাগিয়েছিলেন গ্রিসের জন্য। কিন্তু ৩৩ মিনিটে ইভান পেরিসিচ ও ৪৯ মিনিটে আন্দ্রেজ ক্রামারিচের গোল নিশ্চিত করে দেয়, রাশিয়ায় যেতে হলে গ্রিসকে এখন অলৌকিক কিছুই করতে হবে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন