• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    • ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ

    ইংল্যান্ডে রেফারিরা নিয়মই বোঝেন না: বেনিতেজ

    শেষ বাঁশি যেকোনো সময় বাজবে। উলভারহ্যাম্পটনের বিপক্ষে ১-০ গোলে এগিয়ে থাকা নিউক্যাসেল ইউনাইটেড তখন গুরুত্বপূর্ণ এক জয়ের দ্বারপ্রান্তে। ঠিক ওই মুহূর্তেই বক্সের ভেতর উড়ে আসা এক বলে উলভসের উইলি বোলির হেড জালে জড়ালে জয়বঞ্চিত হয় নিউক্যাসেল। তবে সেই হেডের সময় নিউক্যাসেল গোলরক্ষক মার্টিন ডুবরাভকাকে ফাউলের অভিযোগ আনেন ফুটবলাররা, রেফারি সেটা কানে তোলেননি। ম্যাচ শেষে ক্ষুব্ধ নিউক্যাসেল কোচ রাফা বেনিতেজ বলছেন, ইংল্যান্ডের রেফারিরা আসলে ফুটবলের নিয়মই বোঝেন না।

     

     

    জয়টা পেলেই পয়েন্ট তালিকার তলানি থেকে কিছুটা উপরে উঠতে পারত নিউক্যাসেল। শেষ মুহূর্তে গোল হজম করে ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ম্যাগপাইদের। ৯৫ মিনিটে বোলি হেড করার সময় কনুই দিয়ে কিপার ডুবরাভকাকে ধাক্কা দিয়েছিলেন, নিউক্যাসেলের দাবি ছিল এমনটাই।

    শেষ বাঁশি বাজার পর মাঠে ঢুকে রেফারি গ্রাহাম স্কটের সাথে বেশ কয়েক মিনিট কথা কাটাকাটিও হয়েছে বেনিতেজের। ওই ফাউলের পর গোল বাতিল করা উচিত ছিল রেফারির, দাবি তাঁর, ‘ইংল্যান্ডে রেফারিরা নিয়মই বোঝেন না। এসব নিয়ে অনেক কিছুই চাইলে বলা যায়, কিন্তু বলে কী হবে? কিছুই বদলাবে না। গোলরক্ষককে যেভাবে ফাউল করা হয়েছে, সেটা মানা যায় না। রেফারির উচিত ছিল ওটাকে ফাউল ধরা ও গোল বাতিল করা। আমরা শুধু বলেই যাবো, অনেক বছর ধরেই তো এমনটা দেখছি।’

    গত ডিসেম্বরেও শেষ মুহূর্তে গোলে তাদের বিপক্ষে জিতেছিল উলভস। সেবারও নিউক্যাসেলের অভিযোগ ছিল, বোলি গোল করার আগে নিউক্যাসেল ফরোয়ার্ড পেরেজকে ফাউল করেছিলেন। সেবারও রেফারি ফাউল না ধরে গোলের বাঁশি বাজিয়েছিলেন।