• প্রীতি ম্যাচ
  • " />

     

    • প্রীতি ম্যাচ

    কোরেয়ার গোলে মরক্কোকে হারাল মেসিবিহীন আর্জেন্টিনা

    ভেনিজুয়েলার বিপক্ষে গত সপ্তাহে নখদন্তহীন পারফরম্যান্সের কারণে কম সমালোচনা সইতে হয়নি আর্জেন্টিনাকে। প্রীতি ম্যাচ হলেও আসন্ন কোপা আমেরিকার আগে 'আলবিসেলেস্তে'দের ফর্ম দিয়ে চিন্তিত ছিলেন পাঁড় সমর্থকেরাই। আজ মরক্কোর বিপক্ষে ছিলেন না লিওনেল মেসি, পুরো ম্যাচে আর্জেন্টিনাও ছিল বেশ নিষ্প্রাণ। কিন্তু এবার আর ড্র বা হারের হতাশা নিয়ে নয়, দুই বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা ফিরেছে শেষদিকে গোলে পাওয়া জয় নিয়েই। বদলি ফরোয়ার্ড আনহেল কোরেয়ার গোলে মরক্কোকে তাদেরই মাঠে ১-০ গোলে হারিয়েছে লিওনেল স্ক্যালোনির দল।

    কোরেয়া যে আজ কিছু একটা করবেন, তার আঁচ পাওয়া যাচ্ছিল তিনি নামার পর থেকেই। ৬২ মিনিটে নামার পর তার জাদুতেই জ্বলে উঠে আর্জেন্টিনার নিষ্প্রাণ রক্ষণভাগ। দুর্দান্ত সব ড্রিবলিং, প্রতি-আক্রমণ দিয়ে মরক্কোর রক্ষণভাগকে তটস্থ রেখেছিলেন তিনি। হেসেছেন শেষ হাসিও। ৮৬ মিনিটে ডিবক্সের বাঁ-প্রান্তে বল পান কোরেয়া। দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে তার মাপা শট গোলরক্ষক ইয়াসিন বোনোকে ফাঁকি দিয়ে জড়ায় মরক্কোর জালে। উল্লাসে মাতে আর্জেন্টিনা। ডাগআউট থেকে ছুটে আসেন সবাই, উদযাপনের মধ্যমণি বনে যান কোরেয়া।  

    মরক্কোর ইবনে বতুতা স্টেডিয়ামে আজ আর্জেন্টিনার একাদশে মেসির জায়গায় নেমেছিলেন রড্রিগো ডি পল। এছাড়াও ওয়াল্টার কানেম্যান, জার্মান পেৎজেলা সহ এক ঝাঁক অপরিচিত মুখ নিয়ে দল সাজিয়েছিলেন কোচ লিওনেল স্ক্যালোনি। অপরিচিত আর্জেন্টিনা একাদশ স্বাভাবিকভাবেই ভুগেছে বোঝাপড়ার চরম অভাবে। পুরো প্রথমার্ধে তেমন আক্রমণই গড়তে পারেনি তারা। উল্টো পজেশন ধরে রেখে প্রেসিং ফুটবলে মরক্কোকেই মনে হচ্ছিল ভয়ঙ্কর। কিন্তু আক্রমণে নর্ডিন আম্রাবাত এবং হাকিম জিয়েচের অভাবটা বেশ ভুগিয়েছে হার্ভি রেনার্ডের দলকে।



     

    আক্রমণাত্মক খেলেও আর্জেন্টাইন ডিবক্সের সামনে এসে বারবার মার খেয়ে যাচ্ছিল মরক্কোর অগোছালো আক্রমণ। কানেম্যান-পেৎজেলার অপরীক্ষিত রক্ষণজুটি অবশ্য বেশ কাজে দিয়েছে স্ক্যালোনিকে, প্রথমার্ধে মরক্কোর ফরোয়ার্ডদের রীতিমত পকেটবন্দি করে রেখেছিলেন তারা। কিন্তু কানেম্যানরা একপ্রান্তে যতটা উজ্জ্বল ছিলেন, অন্য প্রান্তে ঠিক ততটাই বিবর্ণ ছিলেন পাউলো দিবালা, লাউতারো মার্টিনেজরা। মরক্কোর মাঠে তীব্র বাতাসের সাথে একেবারেই খাপ খাইয়ে নিতে পারেননি তারা।

     

     

    প্রথমার্ধে নিজেদের ছায়া হয়ে থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধে ঠিকই ম্যাচে ফিরতে থাকে আর্জেন্টিনা। মাতিয়াস সুয়ারেজ, আনহেল কোরেয়ারা নেমেই বেশ ভুগিয়েছেন মরক্কোর রক্ষণভাগকে। প্রথম সুযোগটা পেয়েছিল আর্জেন্টিনাই। ৫৮ মিনিটে গঞ্জালো মন্টিয়েলের শট লাইন থেকে ফিরিয়ে দেন মরক্কোর রোমান সেইস। তবে ম্যাচের বাকিটা সময় এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনাই। শেষ পর্যন্ত কোরেয়ার গোলে জয়ের তৃপ্তি নিয়েই ফিরেছে তারা।