• কোপা আমেরিকা
  • " />

     

    কিক অফের আগে : দল বদলাবে কিন্তু চেহারা কি ফিরবে আর্জেন্টিনার?

    আর্জেন্টিনা-প্যারাগুয়ে 
    বৃহস্পতিবার সকাল ৬.৩০ মিনিট, বেলো হরিজন্তে 


    কলম্বিয়ার কাছে হারের পর জোর গুঞ্জণ পরের ম্যাচে পরিবর্তন আনছেন আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি। আগের ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে ভুগিয়েছে তাদের অকার্যকর মিডফিল্ড। এবার তাই দুইটি পরিবর্তন আসতে পারে সেখানে। ওয়াটফোর্ডের রবার্তো পেরেরা আর উদিনেসের রদ্রিগো ডি পলের খেলার কথা শোনা যাচ্ছে মিডফিল্ডে। প্রথম ম্যাচে অ্যানহেল ডি মারিয়া খেলেছিলেন প্রথম ৪৫ মিনিট। পুরো অর্ধে আর্জেন্টিনার গ্লানিই কেবল বাড়িয়েছেন তিনি। এক ম্যাচ খেলেই তাই জায়গা হারাতে পারেন ডি মারিয়া। সার্জিও আগুয়েরোর জায়গায় আক্রমণে আসতে পারেন লাউতারো মার্টিনেজ। কিন্তু প্রশ্ন হলো পরিবর্তন এনেও কি দলের চেহারা বদালাতে পারবেন আর্জেন্টিনা কোচ? 

    মিডফিল্ডে পরিবর্তনটা অপরিহার্য। গুঞ্জণ সত্যি হলে আগুয়েরোকেও সরে যেতে হবে আক্রমণ থেকে। এর আগেও বড় টুর্নামেন্টগুলোয় শুরুতে আগুয়েরো স্ট্রাইকার হিসেবে খেললেও, পরের ম্যাচ গুলোতে নিয়মিত জায়গা হারিয়েছেন তিনি। ক্লাবের হয়ে আগুয়েরোর যে দুর্দান্ত ফর্ম, তা হয়ত আর্জেন্টিনার জার্সিতে টেনে আনতে পারেননি তিনি কখনই। কিন্তু এর পেছনে আগুয়েরো অন্য কারণও দাঁড় করাতে পারেন। তাকে তো সেভাবেই সুযোগই দেওয়া হয়নি কখনও।  ২১ বছর বয়সী  ইন্টার ফরোয়ার্ড মার্টিনেজ শারীরিকভাবে শক্ত সামর্থ্য আগুয়েরোর চেয়ে। এছাড়া সবদিক দিয়েই আগুয়েরোর বিচারে পিছিয়ে তিনি। মার্টিনেজ প্যারাগুয়ের বিপক্ষে দলের হয়ে বড় ভূমিকা রাখলে তাই সেটা চমকই হবে একরম। 

    ১২ বছর পর কলম্বিয়ার কাছে হারের পর আর্জেন্টিনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি রাখ ঢাক না রেখেই বলেছেন এই হার নিয়ে খুব বেশি না ভাবতে। এলোমেলো আর্জেন্টিনার জন্য হারটা তাই চমক ছিল না- সেটা বললে বোধ হয় বিতর্ক হওয়ার সুযোগ খুব বেশি নেই। কিন্তু এবারের প্রতিপক্ষ প্যারাগুয়ের বিপক্ষেও আর্জেন্টিনার চেহারা না ফিরলে টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হতে পারে গত দুইবারের রানার আপদের। দুঃসময়ে তাই আরও একবার সেই মেসিই ভরসা আর্জেন্টাইনদের। কিন্তু কলম্বিয়ার বিপক্ষে তার পারফরম্যান্সও আশা জাগাতে পারছে না ঠিক সেভাবে।

     

     

    তাই আর্জেন্টিনার আশার জায়গা প্যারাগুয়ের নড়বড়ে রক্ষণ। প্যারাগুয়ে তাদের প্রথম ম্যাচে দুই গোলে এগিয়ে থেকেও পরে ২-২ গোলে ড্র করেছে। পুরোটা সময়ই তাদের রক্ষণ ছিল নড়বড়ে। আর কোপায় শেষ ১৮ ম্যাচে মাত্র একবার জিতেছে প্যারাগুয়ে। এসব কিছু ভরসা যোগাতেই পারে মেসিদের।  তবে প্যারাগুয়ের সঙ্গী সুখস্মৃতিও, আগের দুই দেখায় আর্জেন্টিনাকে কোনো গোল করতে দেয়নি তারা। এবারও সেটার পুনরাবৃত্তি ঘটাতে পারলে প্যারাগুয়ে দারুণ কিছুর স্বপ্ন দেখতেই পারে।

    এই মুহুর্তে সহজ জয় পাওয়া আর্জেন্টিনার জন্য স্বপ্নের মতোই হবে কিছুটা। যে কোনো দলই তাদের বিপক্ষে চোখ রাঙাতে পারে। একটা ব্যাপার তাই নিশ্চিত করেই বলা যায়, প্যারাগুয়ের সঙ্গে তাই পুরোটা সময়ই লড়াই করে যেতে আলবিসেলেস্তেদের। প্যারাগুয়ের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত জয় পেলে, সেটা টুর্নামেন্টে মানসিকভাবেও অনেকখানি এগিয়ে দিতে পারে আর্জেন্টিনাকে।

    দলের খবর
    শেষ ২৩ প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে আর্জেন্টিনার হয়ে আগুয়েরোর গোল মাত্র তিনটি। এক ম্যাচ পরেই যদি আগুয়েরোর ওপর স্কালোনি ভরসা হারান, সেটা একেবারে অযৌক্তিক কিছুও হবে না। পাউলো দিবালাকে আগের ম্যাচে নামাননি তিনি। স্কালোনিও তার সাবেক সহযোগী হোর্হে সাম্পাওলির মতোই দিবালা-মেসিকে একসঙ্গে খেলানোর পক্ষে নন। আর কোচ হিসেবে একেবারেই আনাড়ি স্কালোনি দুইজনকে একসঙ্গে খেলানোর কোনো পথও বাতলে দিতে পারেননি গত এক বছরে। দিবালাকে তাই আরও একবার সাইডবেঞ্চে পার করতে হবে বেশিরভাগ সময়।

    রাইটব্যাক পজিশনে রেনজো সারাভিয়াকে বসিয়ে নামানো হতে পারে রিভার প্লেটের মিল্টন কাস্কোকে। আগের ম্যাচে মেসির সঙ্গে সমন্বয়হীনতায় ভুগেছিলেন সারাভিয়া। কাস্কোও বিশ্বমানের রাইটব্যাক, তাও না। তাই দুর্বলতাটা থেকেই যাচ্ছে আর্জেন্টিনার রক্ষণে।

    প্যারাগুয়ের প্রথম ম্যাচে একাদশে না থাকা মিগুয়েল আলমিরন এবার শুরু থেকেই থাকতে পারেন দলে। নিউক্যাসেল মিডফিল্ডার নিজের সেরাটা দিতে পারলে তাকে আটকাতে আলাদা করে ভাবতে হবে আর্জেন্টিনাকে। ৩৬ বছর বয়সী স্ট্রাইকার অস্কার কার্দোজো আগের ম্যাচে গোল করেছিলেন, এবারও তার থাকার কথা একাদশে।

     



    সম্ভাব্য একাদশ
    আর্জেন্টিনা

    আর্মানি, কাস্কো, পেতজেলা, অটামেন্ডি, টালিয়াফিকো, পারেদেস, লো সেলসো, পেরেরা, ডি পল, মেসি, মার্টিনেজ

    হেড টু হেড
    শেষ সাত ম্যাচে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে মাত্র একবার হেরেছে আর্জেন্টিনা। সেটা অবশ্য দুই দলের খেলা শেষ ম্যাচেই। ২০১৮ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে ১-০ গোলে হেরেছিল সাম্পাওলির দল। তবে কোপা আমেরিকার ইতিহাসে ১৫ বার প্যারাগুয়ের বিপক্ষে খেলে একবারও হারেনি আর্জেন্টিনা।

    প্যাভিলিয়ন প্রেডিকশন আর্জেন্টিনা ২-১ প্যারাগুয়ে

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন