• কোপা আমেরিকা
  • " />

     

    'ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচে ভিএআরের সাহায্য নেওয়া উচিত ছিল'

    কোপার সেমিতে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচের বেশ কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নিয়ে রেফারির ওপর চটেছিলেন লিওনেল মেসি। চিলির বিপক্ষে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে লাল কার্ড দেখার পর নিজের ক্ষোভটা আর আটকে রাখতে পারেননি মেসি। কনমিবল ও রেফারির বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ এনে নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। এতদিন পর্যন্ত ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচের রেফারি রডি জামব্রানো মুখে কুলুপ এটে ছিলেন, এবার মুখ খুললেন তিনি। জামব্রানো স্বীকার করলেন, ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির উচিত ছিল তাঁকে ভিএআরের সাহায্য নিতে বলা। 

    ব্রাজিলের বিপক্ষে সার্জিও আগুয়েরো ও নিকোলাস অটামেন্ডির দুটি পেনাল্টি আবেদন নাকচ করে দিয়েছিলেন ইকুয়েডরের রেফারি জামব্রানো। আর্জেন্টিনার পক্ষ থেকে অভিযোগ ওঠে, চাইলেই ভিএআরের সাহায্য নিতে পারতেন রেফারি। শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে সেলেসাওরা।

    ইকুয়েডরের রেডিও সুপার কে-৮০০ কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জামব্রানো স্বীকার করছেন, তার আসলে ভিএআরের সাহায্য নেওয়া দরকার ছিল, ‘অটামেন্ডি বক্সের ভেতর পড়ে গিয়ে পেনাল্টির আবেদন করেছিলেন। ভিএআর রেফারিরা ভেবেছিল এটা নিশ্চিত পেনাল্টি না, তাই তারা আমাকে আর রিপ্লে দেখতে বলেনি। পরের দিন খবরের কাগজে সবকিছু দেখে আমার মনে হয়েছে, আমাকে ভিএআর নেওয়ার ব্যাপারে তাদের বলা উচিত ছিল। আগুয়েরোর ঘটনায় যদি পোস্টের পেছনের ক্যামেরার সাহায্য নেওয়া হতো, তাহলে ফাউলটা দেখা যেত। আমি জানি না কেনো ভিএআরের রেফারিরা এরকম ক্যামেরার সাহায্য নেন না।’ 

    রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে মেসির মন্তব্যে অবশ্য কিছুটা অবাক হয়েছেন জামব্রানো, ‘তিনি মাঠে নিজের সবটুকু দিয়েই খেলেন। তার সাথে আমার কোন ঝামেলা নেই। কিন্তু ম্যাচের পর তিনি রেফারিং নিয়ে যা বলেছেন, সেটায় আমি হতবাক হয়ে গেছি! তবে সবার ব্যক্তিগত মতামত থাকবেই। সেটায় আমার বলার কিছু নেই।’