• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    • ক্রিকেট, অন্যান্য

    শেষ দিনটা মনে রাখার মতো করতে পারলেন না মুমিনুলরা

    বিসিবি একাদশ ৫০০/৭ ডিক্লে ও ১৭৫ অলআউট 

    বিদর্ভ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ৩৫৩ ও ৩৮/১

    ফলঃ ম্যাচ ড্র 


    জয়ের স্বপ্নটা একটু হলেও উঁকি দিচ্ছিল দিগন্তে। কিন্তু কর্ণাটকে মিনি রঞ্জি ট্রফির চতুর্থ দিনে ব্যাটিং বিপর্যয়ে উলটো পরাজয়ই উঁকি দিতে শুরু করেছিল বিসিবি একাদশের দিগন্তে। শেষ পর্যন্ত সেটা হয়নি অবশ্য, বিদর্ভ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের বিপক্ষে ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে পেরেছেন মুমিনুলরা।

    ১৮৯ রানে এগিয়ে থেকে চতুর্থ দিন শুরু করেছিল বিসিবি একাদশ। হাতে ছিল ৯ উইকেট। কিন্তু চতুর্থ দিনের সকাল থেকেই উইকেট হারাতে থাকে, অধিনায়ক মুমিনুল ফিরে যান আগের দিনের সঙ্গে মাত্র ১ রান যোগ করে। ৩ রানেই আউট মুমিনুল, প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান নাজমুল হোসেন শান্তও ফিরে গেছেন ১৩ রান করে।

    ইয়াসির আলী আরও একবার সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি, আউট হয়ে গেছেন ২০ রানে। ১১২ রানে তখন চতুর্থ উইকেট হারিয়েছে বিসিবি একাদশ। ওপেনার সাইফ হাসান এক প্রান্ত আগলে রেখে ছিলেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত আউট হয়ে গেছেন ১২২ বলে ৪৭ রান করে। এরপর আরিফুল হক, নাঈম হাসান, তাইজুল ইসলামরা কেউ দুই অংক ছুঁতে পারেননি, আউট হয়ে গেছেন তার আগেই। উইকেটকিপার কাজী নুরুল হাসান সোহান অবশ্য ছিলেন, শেষ পর্যন্ত ৪২ বলে ২৬ রান করে আউট হয়ে গেছেন তিনিও। শেষ পর্যন্ত ১৭৫ রানে অলআউট হয়ে গেছে বিসিবি একাদশ। বিদর্ভের বাঁহাতি স্পিনার আদিত্য সারভাতে পেয়েছেন তিনটি উইকেট আর চারটি উইকেট পেয়েছেন ডান হাতি অফ স্পিনার অথর্ভ দেশপান্ডে।

    তবে বিদর্ভের সামনে এর মধ্যেই ৩১৭ রানের লক্ষ্য হয়ে গেছে। ম্যাচের তখন বাকি দেড় সেশনের মতো। প্রায় অসম্ভব এই রান তাড়া করার চেষ্টা আর করেনি বিদর্ভ। শেষ পর্যন্ত ১৪ ওভারে ৩৮ রান তোলার পর ম্যাচ ড্র হয়েছে।

    মিনি রঞ্জি ট্রফিতে আরও দুইটি চার দিনের ম্যাচ খেলবে বিসিবি একাদশ।