• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    • ক্রিকেট, অন্যান্য

    ডমিঙ্গোর প্রেজেন্টেশনে সন্তুষ্ট বিসিবি, শর্টলিস্টের অন্য দুজন কে?

    দুপুর থেকে মিরপুরের বেক্সিমকো কার্যালয়ে অপেক্ষা। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক কোচ রাসেল ডমিঙ্গো সাক্ষাৎকার দিতে এসেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেট বোর্ডের কর্তাব্যক্তিদের কাছে। তার জন্য চলছে অন্তহীন অপেক্ষা। পাঁচটার একটু পর ডমিঙ্গো বের হয়েই তড়িঘড়ি করে উঠে পড়লেন গাড়িতে। কোনো কথা দূরে থাক, ছবি তোলারও সুযোগ না দিয়েই। কথা বলেননি বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও, তবে হাসিমুখ থেকে আঁচ করা গেছে কোচ তাদের খুব পছন্দ হয়নি। তার ঠিক আগেই বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান ও বোর্ড পরিচালক জালাল ইউনুস যে কথা বলেছেন, তাতে ডমিঙ্গোর বাংলাদেশের পরবর্তী কোচ হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা আছে বলেই ধরে নেওয়া যায়।

    বিসিবি সভাপতি বা পরিচালকদের কেউই অবশ্য সরাসরি কিছু বলেননি। তবে ডমিঙ্গোর পর আরও এক দুজন যে সাক্ষাৎকার দেবেন, সেটা জানিয়েছেন। সেই প্রক্রিয়াও দিন দশেকের মধ্যে হয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু সেই তালিকায় কোন দুজন আছেন, সেটি নিশ্চিত করেননি জালাল ইউনিস। তবে একটা আভাস দিয়েছেন, এই দুজনেরই জাতীয় দলের হয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে। সেই তালিকায় চন্ডিকা হাথুরুসিংহে আছে কি না, উত্তর পাওয়া যায়নি এই প্রশ্নেরও। তবে এই তিন জনের বাইরে যে কাউকে নেওয়ার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ, সেটা সেখানে উপস্থিত বোর্ড পরিচালকেরা নিশ্চিত করেছেন।

    ডমিঙ্গোর সাক্ষাৎকারটা অবশ্য বেশ বড়ই হলো। অন্তত ঘন্টা তিনেক ছিলেন বেক্সিমকো কার্যালয়ে। বেশ বড় ও বিস্তারিত একটা পরিকল্পনাও দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের কোচ হলে কী করতে চান এ নিয়ে। জালাল ইউনুস বললেন, সেটা তাদের পছন্দই হয়েছে, ‘
    ডমিঙ্গো বাংলাদেশ ক্রিকেট নিয়ে কী চিন্তা করেন এ বিষয়ে তার ভাবনা পরিবেশন করেছেন। কিভাবে উনি কাজ করতে পারবেন, পারফর্ম্যান্স কিভাবে হবে; সব কিছু নিয়ে উনার সাথে কথা হয়েছে। আমি বলবো এটা বিসিবির জন্য সন্তোষজনক ছিল। পরে যা বললেন, তাতে ডমিঙ্গোকে নিয়ে আরও বেশি ইতিবাচক মনোভাবের আভাস পাওয়া গেল, ‘উনি খুবই পেশাদার কোচ। তার প্রেজেন্টেশন ভালো ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকায় দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন। সব মিলিয়ে তিনি কোয়ালিফাইড।’

    ২০১৩ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত ডমিঙ্গো দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ ছিলেন। তার অধীনে ২০১৫ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো কোনো নকআউট ম্যাচে জয় পায় আফ্রিকা। এই মুহূর্তে দক্ষিণ আফ্রিকার এ দলের দায়িত্বে আছেন। তবে এই সপ্তাহেই আবার দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ ওটিস গিবসন দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়ায় তাকে অন্তবর্তীকালীন কোচ করা হতে পারে, এমন একটি আভাস দিচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকার মিডিয়া।

    তবে ডমিঙ্গো ছাড়া বিসিবির শর্টলিস্টের অন্য দুজন কে, সেটি নিয়ে কিছুটা জল্পনা কল্পনা থাকছেই। গিবসন তো গেছেনই, আরেক দক্ষিণ আফ্রিকার মিকি আর্থারও পাকিস্তানের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন আজ। ফাঁকা আছেন বিশ্বকাপের আফগানদের কোচ ফিল সিমন্স, গত বছর অবশ্য তিনি সাক্ষাৎকার দিয়ে গিয়েছিলেন। নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ মাইক হেসনও আছেন ফাঁকা। তবে হাথুরুসিংহে বিসিবির পরিকল্পনায় আছেন কি না, এখন সেটি নিয়েই প্রশ্ন।