• আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    আবহাওয়ার প্রতিবেদন চেয়েছে আফগান ম্যানেজমেন্ট

    টেস্টের প্রথম দুই দিনেই অল্পস্বল্প বৃষ্টি হয়েছে। তবে সেটা এসে শুধু মুখ দেখিয়েই চলে গেছে। শেষ দিনে অবশ্য জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের আকাশ বেশ ভালোমতোই কালো হয়ে গেল। আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেখে একটু উৎকন্ঠায় আছে আফগানিস্তানও। আজ সংবাদ সম্মেলনের পর আফগান ম্যানেজার নাজিম জার আবদুররহিম জাই জানালেন, সামনের দুই দিনের আবহাওয়ার প্রতিবেদন চেয়েছেন তারা স্থানীয় আবহাওয়া অফিস থেকে।

     

     

    অ্যাকুওয়েদার বলছে, কাল সকালে চট্টগ্রামে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা ৬২ শতাংশ। বিসিবি আরও নির্দিষ্ট করে বলছে, সকালে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা ৮০ শতাংশ। যদিও বেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সেটা কমতে থাকবে। বিকেল তিনটার দিকে আবার জোর বৃষ্টি আসতে পারে। তখন হতে পারে বজ্রসহ বৃষ্টিও।

     

    ম্যাচের এখন যে অবস্থা, তাতে বাংলাদেশের জন্য ম্যাচ জেতাটা অলৌকিকের মতোই। এখনই আফগানদের লিড হয়ে গেছে ৩৭৪ রানের, হাতে আরও দুই উইকেট। ক্রিকেট ইতিহাসেই চতুর্থ ইনিংসে এর চেয়ে বেশি রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড আছে সাতটি। বাংলাদেশকে চতুর্থ ইনিংসে অলআউট করার জন্য অবশ্য দুই দিনের কাছাকাছি সময় পাচ্ছে আফগানরা। কিন্তু বৃষ্টি বাধায় সেটি কমে যেতে পারে। এখন ম্যাচের অবস্থা যেমন, তাতে সেই সুওগ হাতছাড়া হলে আফগানদের জন্য বড় আক্ষেপেরই হবে। সেজন্যই স্থানীয় আবহাওয়া অধিদপ্ততের কাছে সাগরিকা সংলগ্ন এলাকার আবহাওয়ার পূর্ণ প্রতিবেদন চেয়েছে আফগান টিম ম্যানেজমেন্ট। বাংলাদেশের এখন এমন অবস্থা, আফগানিস্তানের সঙ্গে ম্যাচ বাঁচানোর জন্য বৃষ্টির ওপর নির্ভর করতে হয়!

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন