• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    পাকিস্তান সফরে শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক থিরিমান্নে ও শনাকা

    ১০ জন ক্রিকেটার নিজেদেরকে সরিয়ে নেওয়ার পর শ্রীলঙ্কার পাকিস্তান সফরের জন্য ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করেছে সে দেশের ক্রিকেট বোর্ড। ওয়ানডেতে তাদের নেতৃত্ব দেবেন ব্যাটসম্যান লাহিরু থিরিমান্নে, টি-টোয়েন্টিতে পেসার দাশুন শনাকা। 

    ২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার ও ম্যাচ অফিশিয়ালদের বাসে সন্ত্রাসী হামলার পর কার্যত পাকিস্তানে বন্ধ হয়ে যায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। সাম্প্রতিক সময়ে কিছু দল গেছে সেখানে, শ্রীলঙ্কার এই সফরকে পিসিবি দেখছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর অন্যতম উন্নতি হিসেবে। 

    তবে এর মাঝেই ওয়ানডে অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গাসহ ২০ জন ক্রিকেটার বোর্ডের কাছে এ সফরে না যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। থিরিমান্নে ও শনাকাকে অধিনায়ক করে দল ঘোষণা করেছে এরপর এসএলসি। এর আগে তিন টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন থিরিমান্নে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অধিনায়কত্বের অভিজ্ঞতা নেই শনাকার। 

    দুই স্কোয়াড মিলিয়ে অভিষেক না হওয়া ক্রিকেটার আছেন দুজন- উইকেটকিপার মিনোদ বানুকা ও ব্যাটসম্যান ভানুকা রাজাপাকশে। পরেরজন আছেন শুধু টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে। 

    সেপ্টেম্বরের ২৭ থেকে ৩ অক্টোবরের মাঝে করাচিতে তিনটি ওয়ানডে খেলবে দুই দল, এরপর লাহোরে হবে তিনটি টি-টোয়েন্টি। এফটিপিতে শ্রীলঙ্কার এ সফরে শুরুতে হওয়ার কথা ছিল টেস্ট। তবে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সে ম্যাচটি পাকিস্তান নিজেদের দেশে আয়োজন করতে চায়, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি তাই তাদের কাছে একরকমের নিরাপত্তার মহড়া। 

     

     

    ওয়ানডে স্কোয়াড 
    লাহিরু থিরিমান্নে (অধিনায়ক), দানুশকা গুনাথিলাকা, সাদিরা সমারাবিক্রমা, আভিশকা ফার্ন্ডান্ডো, ওশাদা ফার্নান্ডো, শেহান জয়াসুরিয়া, দাশুন শনাকা, মিনোদ ভানুকা, অ্যাঞ্জেলো পেরেরা, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, লাকশান সান্দাকান, নুয়ান প্রদিপ, ইসুরু উদানা, কাসুন রাজিথা, লাহিরু কুমারা 

    টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড 
    দাসুন শনাকা (অধিনায়ক), দানুশকা গুনাথিলাকা, সাদিরা সমারবিক্রমা, আভিশকা ফার্নান্ডো, ওশাদা ফার্নান্ডো, শেহান জয়াসুরিয়া, অ্যাঞ্জেলো পেরেরা, ভানুকা রাজাপাকশে, মিনোদ ভানুকা, লাহিরু মাদুশাংকা, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, লাকশান সান্দাকান, ইসুরু উদানা, নুয়ান প্রদিপ, কাসুন রাজিথা, লাহিরু কুমারা