• বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
  • " />

     

    ভুটানের বিপক্ষে দুইটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ

    অক্টোবরে বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ বাছাইপর্বে কাতার ও ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দেশের মাঠে ভুটানের বিপক্ষে দুইটি প্রীতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে দুইটি প্রীতি ম্যাচ খেলার কথা জানিয়েছিলেন। কিন্তু দল নির্দিষ্ট ছিল না তখন।

    ফিফা র‍্যাংকিংয়ে আপাতত বাংলাদেশের চেয়ে দুই ধাপ এগিয়ে আছে ভুটান। গত বছর সাফে দুইদলের সবশেষ দেখায় জিতেছিল বাংলাদেশ। তবে ২০১৬ সালে এএফসি বাছাইপর্বে ভুটানের কাছেই ৩-১ গোলে হেরে একরকম নির্বাসনে গিয়েছিল দেশের আন্তর্জাতিক ফুটবল। 

    বাংলাদেশ কোচের দেওয়া পছন্দের তালিকায় ছিল ভুটানের নাম। তখন অবশ্য একটি আন্তর্জাতিক দল ও একটি ঘরোয়া লিগের দলের বিপক্ষে খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের। বাকি দলগুলো বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ব্যস্ত থাকায় আপাতত ভুটানকে রাজি করানো গেছে। তাদের বিপক্ষে বাংলাদেশ খেলবে দুইটি ম্যাচ।  

    চলতি মাসের ২৫ তারিখ থেকে শুরু হবে বাংলাদেশের অনুশীলন ক্যাম্প। এর আগে ২৬ জনের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছেন জেমি ডে। বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ বাছাইয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচ কাতারের বিপক্ষে ঢাকায়, ও এর ৫ দিন পর অক্টোবরের ১৫ তারিখ ভারতের বিপক্ষে কলকাতায় খেলবেন জামান ভুঁইয়ারা। 

    গোলরক্ষক
    আশরাফুল ইসলাম রানা (শেখ রাসেল), শহীদুল আলম সোহেল (আবাহনী), আনিসুর রহমান (বসুন্ধরা কিংস), পাপ্পু আহমেদ (মোহামেডান স্পোর্টিং) 
    ডিফেন্ডার
    টুটুল হোসেন বাদশা (আবাহনী), সুশান্ত ত্রিপুরা (বসুন্ধরা কিংস), বিশ্বনাথ ঘোষ (শেখ রাসেল), ইয়াসিন খান (শেখ জামাল), রহমত মিয়া (সাইফ স্পোর্টিং), রিয়াদুল হাসান (সাইফ স্পোর্টিং) ,   ইয়াসিন আরাফাত (সাইফ স্পোরটিং), মনজুর রহমান মানিক (শেখ জামাল) 
    মিডফিল্ড
    সোহেল রানা (আবাহনী), জামাল ভূঁইয়া (সাইফ স্পোর্টিং), রবিউল হাসান (আরামবাগ কেসি) , মাসুক মিয়া জনি  (বসুন্ধরা কিংস), মামুনুল ইসলাম (আবাহনী), মোহাম্মদ ইব্রাহিম (বসুন্ধরা কিংস), আরিফুর রহমান (আরামবাগ), বিপলু আহমেদ (শেখ রাসেল), তৈহিদুল আলম সবুজ (বসুন্ধরা কিংস) 
    ফরোয়ার্ড
    নাবিব নেওয়াজ জীবন (আবাহনী), মাহবুবুর রহমান সুফিল (বসুন্ধরা কিংস), মতিন মিয়া (বসুন্ধরা কিংস), সাদউদ্দিন (আবাহনী) ও জুয়েল রানা (আবাহনী)