• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    ‘অপ্রতিরোধ্য’ লিভারপুলকে পেছনে ফেলার ব্যাপারে আশাবাদী গার্দিওলা

    লিগের মাত্র আটটি ম্যাচ শেষ হয়েছে। এই সময়ের মাঝেই লিভারপুলের চেয়ে আট পয়েন্ট পিছিয়ে গেছে গত দুইবারের চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। আন্তর্জাতিক বিরতির পর আজ আবার আবার শুরু হচ্ছে প্রিমিয়ার লিগের লড়াই। ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা সমর্থকদের শোনালেন আশার বাণী। গার্দিওলা বলছেন, ‘অপ্রতিরোধ্য’ লিভারপুলকে পেছনে ফেলে লিগ জেতার সুযোগ আছে সিটিজেনদেরও। 

    আগের মৌসুমেও একটা পর্যায়ে লিভারপুলের চেয়ে সাত পয়েন্ট ইছিয়ে ছিল সিটি। শেষ পর্যন্ত সেই পয়েন্ট ব্যবধান কমিয়ে শিরোপা উঠেছে গার্দিওলার হাতেই। লিভারপুল এই বছরে টানা ১৭ ম্যাচ জিতেছে। আর একটি ম্যাচ জিতলেই তারা সিটির টানা ১৮ ম্যাচ জেতার রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবে। 

    গার্দিওলা জানালেন, এখনো লিভারপুলকে টপকে যাওয়ার অনেক সময় বাকি আছে, ‘প্রতিটা মৌসুমই আলাদা। এত আগেই কে শিরোপা জিতবে সেটা বলে দেওয়া যায় না। এই মুহূর্তে আমি ওসব নিয়ে আলাদাভাবে ভাবছি না। এপ্রিল, মে মাসে এটা ভাবা যেতে পারে। তবে এই মুহূর্তে লিভারপুল অপ্রতিরোধ্য। তারা চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছে, লিগের আট ম্যাচের একটিতেও হারেনি। এখনো অনেক ম্যাচ বাকি আছে মৌসুমের।’ 

    হ্যাটট্রিক প্রিমিয়ার লিগ জেতার ইচ্ছার কথাও জানালেন গার্দিওলা, ‘আমি চাই না সবাই এটা ভাবুক যে, এই মানুষটা আজীবনই লিগ জিততে চায়। যদিও আমি সত্যিই জিততে চাই। আমরা এখনো শিরোপা দৌড়ে ভালোভাবেই টিকে আছি। তবে এখনো অনেক কিছু বাকি আছে। লিভারপুলের সাথে চেলসি, আর্সেনালও দারুণ খেলছে। যদি শেষ পর্যন্ত লিগ শিরোপা নাও জিতি, যারা জিতবে তাদের অভিনন্দনই জানাবো।’ 

    বড়দিনের সময় তিনদিনের ব্যবধানে সিটিকে খেলতে হবে দুইটি ম্যাচ। ২৭ ডিসেম্বর উলভারহ্যাম্পটনের বিপক্ষে, ২৯ ডিসেম্বরের ম্যাচ শেফিল্ড ইউনাইটেডের সাথে। এমন সূচি নিয়ে খুব একটা সন্তুষ্ট নন গার্দিওলা, ‘যারা ম্যাচ সম্প্রচার করে তারাই আসলে হর্তাকর্তা, আমরা না। এই ব্যাপারটা নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে, কিছু কোনো ফলাফল আসেনি। এই পদ্ধতিটা ফুটবলারদের জন্য অনুকূল না। আমি দুই ম্যাচের মাঝের সময়টা ফুটবলারদের বলব তারা যেন ৪৮ ঘণ্টার জন্য ফ্রিজের ভেতর ঢুকে থাকে! আমি মজা করছি না, সত্যিই এটা করতে হবে। দুই ম্যাচের মাঝে ওমলেট তৈরি করার জন্য ফ্রিজ খুললে তাদের সাথে কথা হতে পারে! এছাড়া আমি ফুটবলারদের সাথে কোনো কথাই বলব না।'