• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    কিক অফের আগে: ক্লপের 'অপয়া' ওল্ড ট্রাফোর্ডে লিভারপুলের সামনে রেকর্ডের হাতছানি

    কবে, কখন

    ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড-লিভারপুল

    প্রিমিয়ার লিগ 
    ওল্ড ট্রাফোর্ড 
    ২০ অক্টোবর, রাত ৯.৩০


    একটা সময় ইংলিশ ফুটবলের সবচেয়ে আকর্ষনীয় ম্যাচে ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড-লিভারপুল। তকমটা এখনও হারিয়ে যায়নি। প্রিমিয়ার লিগ, ইউরোপ- সবখানে একটা সময় আধিপত্য ছিল ‘রেড ডেভিল’দের; অন্যদিকে প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ চারে থাকতেই হিমশিম খেতে হত লিভারপুলকে। কিন্তু গত কয়েক বছরে পাশার দান উলটে গেছে পুরোপুরি। আগে চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা নিয়ে সংশয় থাকা লিভারপুল বর্তমান ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন, গত মৌসুমে অল্পের জন্য জেতা হয়নি প্রিমিয়ার লিগ।

    ইউনাইটেড জৌলুস হারিয়েছে। ইয়ুর্গেন ক্লপ যখন বিশ্বসেরা কোচের খেতাবে ভূষিত হচ্ছেন, সেখানে লিভারপুলের বিপক্ষে চাকরি হারানোর আশঙ্কায় থাকছেন ওলে গানার সোলশার। লিভারপুলকে নিয়ে ক্লপ এসেছেন বহুদূর, কিন্তু একটা জায়গা এখনও ঘাটতি আছে তাঁর। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে রেকর্ড মোটেই সুবিধার নয় তার দলের। অথচ এই ম্যাচ জিতলে ম্যান সিটির টানা ১৮ প্রিমিয়ার লিগ জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসাবে তাঁর দল। অপয়া ওল্ড ট্রাফোর্ডেকে এবার 'পয়া' বানানো লক্ষ্য তাই ক্লপের। 

    চাকরি হারানোর ভয় ভাবায় না সোলশারকে

    ইউনাইটেডের হয়ে শুরুটা অসাধারণ হয়েছিল তার। কিন্তু এই মৌসুমের শুরু থেকেই রীতিমত বিরবর্ণ ইউনাইটেড। ৮ ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষ দশের বাইরেই চলে গেছে তারা। লিভারপুলের বিপক্ষে হারলে চাকরিও হারাতে পারেন সোলশার। কিন্তু যাকে নিয়ে এত আলোচনা-সমালোচনা, সেই সোলশার ম্যাচের আগে জানিয়েছেন চাকরি থাকা না থাকা নিয়ে ভাবছেন না তিনি, “ইউনাইটেডের ম্যানেজার হতে পারা আমার জন্য অত্যন্ত গর্বের। শুরুটা দুর্দান্ত ছিল, কিন্তু এই মৌসুমে বেশ ভুগতে হচ্ছে আমাদের। ইনজুরি, ফর্মহীনতা সব মিলিয়ে কিছুটা বেকায়দায়ই পড়েছি আমরা।"

     

     

    "অবশ্যই ফর্মের কারণে ক্লাবের সবাই কিছুটা হতাশ, তবে হাল ছাড়ছে না কেউই, কারণ ফুটবলে খারাপ সময় থাকবেই। লিভারপুল এখন ইউরোপের সেরা দলগুলোর একটি। তবে ম্যান ইউনাইটেড-লিভারপুল ম্যাচে সাম্প্রতিক ফর্ম, কেতাবী পরিসংখ্যান এসবে কিছু যায় আসে না। আর ওল্ড ট্রাফোর্ডে তাদের বিপক্ষে শেষ পাঁচ ম্যাচ হারিনি আমরা। চাকরি হারানোর ভয় নেই আমার, সেটা নিয়ে ভাবছিও না।”

    ইনজুরির কারণে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই মাঠের বাইরে ইউনাইটেড মিডফিল্ডার পল পগবা। ইউনাইটেড যখন লিভারপুলের বিপক্ষে প্রস্তুতি নিতে ঘাম ঝরাচ্ছে ক্যারিংটনে, তখন পগবা আছেন দুবাইয়ে। সেখানে রিয়াল মাদ্রিদ ম্যানেজার জিনেদিন জিদানের সাথে দেখা করেছেন তিনি; যিনি পগবাকে দলে নেওয়ার ইচ্ছার কথা প্রকাশ্যে বলেছেন একাধিকবার।

    কিন্তু সোলশার বলেছেন, পগবার দুবাই যাত্রা বা জিদানের সাথে সাক্ষাৎকারে সমস্যা নেই তার, “পল ইনজুরি থেকে সারতেই দুবাই গিয়েছিল চিকিৎসকের সাথে দেখা করতে। সেখানেই কাকতালীয়ভাবে জিদানের সাথে দেখা হয়ে যায় তার। এখানে দোষের কিছু দেখছি না আমি।”

     

    ‘মাইন্ডগেম’ খেলে নয়, ক্লপ জিততে চান মাঠেই

    ২০১৯-২০ প্রিমিয়ার লিগের মাত্র ৮ ম্যাচ পরেই ইউনাইটেডের চেয়ে ১৫ পয়েন্টে এগিয়ে আছে লিভারপুল। ইউনাইটেডের চেয়ে গোলও বেশি করেছে তারা, গোল হজম করেছেও কম। সোলশারের দল যখন ইনজুরিতে ধুঁকছে, সেদিকে পূর্ণশক্তির দল নিয়েই ওল্ড ট্রাফোর্ডে যাচ্ছে ‘অল রেড’রা। আক্ষরিক অর্থে সব দিক দিয়েই প্রতিপক্ষের চেয়ে এগিয়ে আছে ইয়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুল। কিন্তু এতকিছুর পরও নিজেদের ফেভারিট মানতে নারাজ ক্লপ, “প্রত্যেক ম্যাচের আগেই আমরা ফেভারিট থাকি। এটা অনেকে অনেকভাবে নেয়।"

     

     

    "কেউ নেয় বাড়তি চাপ হিসেবে, কেউ আবার ভাবে অনুপ্রেরণা। আসলে পরিসংখ্যান বা সাম্প্রতিক ফর্ম দেখে ফেভারিটের তকমা লাগিয়ে দেওয়ার পক্ষে নই আমি। ইউনাইটেডের পরিসংখ্যান যেমনই হোক, খেলা তাদেরই মাঠে। সমর্থন তাদেরই বেশি থাকবে, এরকম ম্যাচে হোম সাপোর্ট অনেক বড় বিষয়।”

    ইউনাইটেডের মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ড ছাড়া প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ ছয়ের দলগুলোকে হোম বা অ্যাওয়েতে হারাতে বেগ পেতে হয়নি লিভারপুলকে। কিন্তু ইউনাইটেডের মাঠ যেন লিভারপুলের জন্য অপয়া।

    শেষ পাঁচ ম্যাচে জয়ের দেখা মেলেনি, ওল্ড ট্রাফোর্ডে খেলা ১৬ ম্যাচে মাত্র ১ গোল করেছেন মোহামেদ সালাহ-রবার্তো ফিরমিনো-সাদিও মানে ত্রয়ী। আগামীকাল জিতলেই প্রিমিয়ার লিগে ম্যান সিটির (১৮) টানা জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসাবে ক্লপের দল। তবে ক্লপ জানিয়েছেন, রেকর্ড নিয়ে ভাবছেন না তিনি, “কোনও রেকর্ড নিয়ে দলের কারো মাথাব্যথা নেই। আমরা দীর্ঘকালীন পরিকল্পনার চেয়ে প্রতি ম্যাচ হিসেবে এগুচ্ছি। ফলাফলটাও এখন পর্যন্ত ইতিবাচক, এভাবেই আগাতে চাই।”

    দলের খবর

    ইনজুরি নিয়ে পুরো মৌসুমের মত লিভারপুল ম্যাচের আগেও দুঃসংবাদ পেয়েছে ইউনাইটেড। প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষস্থানীয় দলের বিপক্ষে থাকছেন না ডেভিড ডি গেয়া এবং পগবা। ডি গিয়ার জায়গায় খেলার কথা আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরোর। প্রিমিয়ার লিগে তাঁর রেকর্ড দুর্দান্ত, তবে সেটা অল্প কিছু ম্যাচের হিসাবে।  

    তবে কিছুটা সুসংবাদও পেয়েছেন সোলশার। ইনজুরি কাটিয়ে ফিরতে পারেন অ্যান্থনি মার্শিয়াল এবং অ্যারন ওয়ান-বিসাকা। ইনজুরিতে পড়ার আগ পর্যন্ত দুর্দান্ত খেলেছিলেন মার্শিয়াল। প্রতিপক্ষের মত ইনজুরি নিয়ে ভাবতে হচ্ছে না ক্লপকে; পাচ্ছেন পূর্ণশক্তির স্কোয়াডই। সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠেছেন জোয়েল মাতিপও।

     

     

    সম্ভাব্য একাদশ

    ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড (৪-৩-৩): রোমেরো; দালো, লিন্ডেলফ, ম্যাগুয়ের, ইয়ং; ম্যাকটমিনে, মাতিচ, পেরেইরা; জেমস, মার্শিয়াল, রাশফোর্ড

    লিভারপুল (৪-৩-৩): অ্যালিসন; আলেকজান্ডার-আর্নল্ড, মাতিপ, ভ্যান ডাইক, রবার্টসন; হেন্ডারসন, ওয়াইনাল্ডাম, ফাবিনহো; সালাহ, ফিরমিনো, মানে

     

    সংখ্যায় সংখ্যায়

    • ২৩১তম বারের মত মুখোমুখি হচ্চে দুই দল; ইউনাইটেড জিতেছে ৮৮ ম্যাচ; লিভারপুলের জয় ৭৬টিতে
    • ওল্ড ট্রাফোর্ডে খেলা শেষ ৬ ম্যাচে মাত্র ১ গোল করেছেন সালাহ-ফিরমিনো-মানে

     

    • ইউনাইটেডকে হারালে প্রিমিয়ার লিগের টানা জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসাবে লিভারপুলশেষ দশ দেখায় ম্যান ইউনাইটেডকে মাত্র একবার হারাতে পেরেছে লিভারপুল, আর ওল্ড ট্রাফোর্ডে দুই দলের শেষ ছয় ম্যাচে একবারও জয় পায়নি তারা