• সিরি আ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    রোনালদো-বুফনে জুভেন্টাসের স্বস্তির জয়

    শেষ বাঁশি যেকোনো সময়ই বেজে উঠবে। বোলোনিয়ার ফেড্রিকো স্যান্টান্ডারের হেড গিয়ে লাগল পোস্টে। সেই বল ফিরে এলো তাঁর পায়েই। লাফিয়ে উঠে করা তাঁর ডান পায়ের বাইসাইকেল কিকটা জালে জড়াতেই নিয়েছিল, ঠিক তখনই দারুণভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ে সেটা ঠেকিয়ে দিলেন জুভেন্টাস গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন। শেষ মুহূর্তে তাঁর এই অসাধারণ সেভেই পয়েন্ট হারাতে হয়নি তুরিনের ওল্ড লেডিদের। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও মিরালেম পিয়ানিচের গোলে বোলোনিয়ার বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জিতে লিগের শীর্ষে থাকল জুভেন্টাস। 

    জুভেন্টাস স্টেডিয়ামে ম্যাচের ১৫ মিনিটে জুভেন্টাসকে এগিয়ে দিতে পারতেন গঞ্জালো হিগুয়াইন। তাঁর শট ঠেকিয়ে দেন লুকাস স্করূপস্কি। চার মিনিট পর রোনালদোকে অবশ্য আটকাতে পারেননি তিনি। ডিফেন্ডারকে দারুণভাবে কাটিয়ে দান পায়ের শটে নিজের ৭০১তম গোল পান সিআর সেভেন। ম্যাচে সমতা ফেরাতে অবশ্য খুব বেশিক্ষণ সময় নেয়নি বোলোনিয়া। ২৬ মিনিটে দানিলোর গোলে ম্যাচে ফেরে তারা। প্রথমার্ধ শেষের আগেই আবার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ এসেছিল জুভেন্টাসের সামনে। অ্যালেক্স সান্দ্রোর সামনে দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছেন সেই স্করূপস্কিই। 

    ৪১ বছর বয়সেও দুর্দান্ত বুফন 

     

    দ্বিতীয়ার্ধের কিছুক্ষণের মাঝেই নিজের দ্বিতীয় গোলের সুযোগ তৈরি করেছিলেন রোনালদো। ফেড্রিকো বেরনাদেসির ক্রসে রোনালদোর হেড ঠেকিয়ে দেন স্করূপস্কি। পরের মিনিটেই জুভেন্টাসকে লিড এনে দেন পিয়ানিচ। রোনালদোর একটি শট ঠেকাতে গিয়েছিলেন স্করূপস্কি, বল ফিরে এলে বক্সের ভেতর ডিফেন্ডারদের মাঝে তৈরি হয় ভুল বুঝাবুঝি। এই সুযোগেই বল জালে জড়ান পিয়ানিচ।  

    ৫৯ মিনিটে জুভেন্টাসের লিড আরও বাড়াতে পারতেন স্যামি খেদিরা। তাঁর শট বাঁচিয়ে দিয়েছেন বোলোনিয়া কিপার। ৬৪ ও ৭৫ মিনিটে মিনিটে হিগুইয়ানকেও দুইবার হতাশ করেন তিনি। ৮১ মিনিটে রোনালদোর শটও ঠেকিয়ে দিয়ে বোলোনিয়াকে ম্যাচে রাখেন স্করূপস্কি। 

    ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে পয়েন্ট পাওয়ার দারুণ একটি সুযোগ এসেছিল বোলোনিয়ার সামনে। স্যান্টান্ডারের বাইসাইকেল কিক বাম হাত দিয়ে দারুণভাবে ফিরিয়ে দিয়ে জুভেন্টাসের জয় নিশ্চিত করেন ৪১ বছর বয়সী বুফন। 

    এই জয়ে ৮ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই রইল জুভেন্টাস। এক ম্যাচ কম খেলে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ইন্টার মিলান।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন