• লা লিগা
  • " />

     

    ইনজুরি সমস্যাকে অজুহাত বানাতে চান না জিদান

    ২০০৬ সালে শেষবার যখন রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়েছিল মায়োরকা, তখন রিয়ালের হয়ে সান মসে খেলতে এসেছিলেন জিনেদিন জিদান। ১৩ বছর পর রিয়ালের কোচ হয়ে ফিরলেন সেই মাঠে। এবারও হারের তিক্ত স্বাদ নিয়েই বাড়ি ফিরতে হচ্ছে জিজুকে। ম্যাচের পর জিদান বলছেন, মায়োরকার খেলায় কিছুটা অবাক হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। হারের জন্য অবশ্য দলের ইনজুরি সমস্যাকে অজুহাত হিসেবে দাঁড় করাতে রাজি নন জিদান। 

    মাত্র সাত মিনিটেই লিড নেয় মায়োরকা। প্রতিপক্ষের এমন গোলে কিছুটা চমকে গিয়েছিলেন জিদান, ‘নিজেদের মাঠে প্রতিপক্ষ ভালো খেলবে, এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। কিন্তু মাত্র আট মিনিটের মাঝেই তারা গোল পেয়ে যাবে, সেটায় একটু অবাক হয়েছিলাম। এই গোলের পর তারা রক্ষণে মনোযোগ দিয়েছে, আমরাও গোল খুঁজে পাইনি।’ 

    ইনজুরির কারণে টনি ক্রুস, গ্যারেথ বেল, লুকা মদ্রিচদের সবাই ছিলেন স্কোয়াডের বাইরে। বিশ্রামে ছিলেন দানি কারভাহাল, রাফায়েল ভারানরাও। সন্তানের জন্মের সময় পরিবারের সাথে থাকায় এডেন হ্যাজার্ডকেও দলে রাখতে পারেননি জিদান। হারের জন্য অবশ্য ফুটবলারদের ইনজুরি সমস্যাকে অজুহাত হিসেবে দাঁড় করাতে চান না জিজু, ‘ইনজুরি ফুটবলের একটা অংশ। আমাদের অন্য ফুটবলাররাও আছে। এটা তাই কোনো অজুহাত হতে পারে না। আমাদের এটা প্রমাণ করতে হবে যে স্কোয়াডে সবাই ভালো করতে পারে, তারা লা লিগায় খেলার যোগ্যতাও রাখে।’ 

    শীর্ষস্থান হাতছাড়া হলেও খুব একটা দুশ্চিন্তায় নেই জিদান, ‘আমরা যেভাবে খেলতে চেয়েছিলাম সেটা পারিনি। প্রথমার্ধে ভালো খেললেও দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য কিছুটা খেই হারিয়ে ফেলেছে দল। তবে আমি খুব বেশি দুশ্চিন্তা করছি না এই হার নিয়ে।’