• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    কিক অফের আগে : আত্মবিশ্বাসী চেলসির সামনে নড়বড়ে সিটি

    কবে, কখন
    ম্যানচেস্টার সিটি-চেলসি
    প্রিমিয়ার লিগ
    রাত ১০.৩০


    ৯ পয়েন্ট। শীর্ষে থাকা লিভারপুলের সঙ্গে ম্যানচেস্টার সিটির পয়েন্ট ব্যবধান। আন্তর্জাতিক বিরতির আগে লিভারপুলের কাছে হারের পর ম্যানচেস্টার সিটি এখন লেস্টার সিটি, চেলসির চেয়েও পিছিয়ে চার নম্বরে। চেলসির বিপক্ষে মাঠে নামার আগেই লিভারপুলের সঙ্গে তাদের পার্থক্য হয়ে যেতে পারে ১২ পয়েন্টের। ক্রিস্টাল প্যালেসকে লিভারপুল হারিয়ে দিলেই বেড়ে যাবে দুইদলের ব্যবধান। এর পর সেটা কমিয়ে আবারও ৯ এ আনতে সিটিকে জিততেই হবে চেলসির বিপক্ষে।

    ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড আবার ইতিহাদে ফিরছেন। ম্যানচেস্টার সিটির জার্সি গায়ে চেলসির বিপক্ষে গোল করার রেকর্ডও আছে তার। এবার অবশ্য ফিরছেন তরুণ চেলসির ম্যানেজার হয়ে। ম্যানেজার হিসেবে ম্যানচেস্টার যাত্রাও এর ভেতর একবার হয়ে গেছে ল্যাম্পার্ডের। মৌসুমের প্রথম ম্যাচে তখন ওল্ড ট্রাফোর্ডে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে ৪-০ তে অপদস্থ হয়েছিল চেলসি।

    কিন্তু সেটা এখন দূর অতীত। এই চেলসি এর পর ল্যাম্পার্ডের অধীনে নতুন দিনের মিছিলে। মেসন মাউন্ট, ট্যামি আব্রাহামদের চেলসি সবাইকে চমকে দিয়ে এখন পয়েন্ট টেবিলের তিনে। প্রিমিয়ার লিগে শেষ ম্যাচের ৫ ম্যাচের সব কয়টিতে জিতেছে ব্লুজরা। এমন কিছুর স্বপ্নই তো শুরুতে দেখেছিলেন চেলসি ভক্তরা! 

    গত নয় মৌসুমে মাত্র পঞ্চমবারের মতো চেলসি সিটির বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছে তাদের ওপরে থেকে। ওল্ড ট্রাফোর্ড যাত্রা থেকে ইতিহাদ যাত্রার ভেতর ৩ মাস সময়ের ব্যবধানে ল্যাম্পার্ড পুরো বদলে দিয়েছেন চেলসির চেহারা। আর পেপ গার্দিওলার সিটির শুরু করেছে উলটো যাত্রা। সাউদাম্পটনের সঙ্গে ধুঁকতে ধুঁকতে জয়, এর পর আটালান্টার সঙ্গে ড্র আর শেষে লিভারপুলের বিপক্ষে হার- এই সিটি অপরাজেয় নয়। গত মৌসুমে সবমিলিয়ে লিগে চারটি ম্যাচ হেরেছিল ম্যান সিটি। এবার এরই মধ্যে হারের সংখ্যা হয়ে গেছে তিন।

    আত্মবিশ্বাস তাই সঙ্গী চেলসির। আর সিটি পিছিয়ে পড়ছে বের্নার্দো সিলভাকে হারিয়েও। বর্ণবাদের অভিযোগে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়ছেন তিনিসে নিষেধাজ্ঞাই কাটাবেন এই ম্যাচে। তবে এক সিলভা বাদেও কাগজে কলমে সিটির দলটা এগিয়ে বহুগুণে। সিটির কাছে হার চেলসির অগ্রযাত্রায় তাই বড় প্রভাব ফেলবে না। তবে উলটোটা হলে শিরোপা স্বপ্ন একরকম শেষ হয়ে যেতে পারে সিটির। নড়বড়ে সিটির জন্য তাই এই ম্যাচটা নিজেদের শক্ত অবস্থান জানান দেওয়ারও।

    দলের খবর
    বের্নার্দো সিলভা নেই, তবে গোলবারের নিচে ফিরতে পারেন এডারসন। অনুশীলনে ফিরেছেন সিটি প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক। বেঞ্জামিন মেন্ডিকে আগের ম্যাচে বিবচেনা করেননি গার্দিওলা। এবার তাকে ফিরিয়ে আনতে পারেন একাদশে।

    নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে চেলসির হয়ে ফিরছেন জর্জিনিয়ো। কোভাসিচ, এনগোলো কান্তেদের সঙ্গে মিডফিল্ডে দারুণ জুটিটা তাই ফিরে পাচ্ছে চেলসি। তবে কলাম হজসন ওদয়ের ইনজুরির কারণে খেলার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

    সম্ভাব্য একাদশ
    ম্যান সিটি

    এডারসন, ওয়াকার, স্টোনস, ফার্নান্দিনহো, মেন্ডি, গুন্দোয়ান, ডি ব্রুইন, রদ্রি, মাহরেজ, স্টার্লিং, আগুয়েরো 
    চেলসি
    কেপা, আজপিলিকুয়েতা, টমরি, জুমা, এমারসন, কান্তে, জর্জিনিয়ো, কোভাসিচ, মাউন্ট, উইলিয়ান, আব্রাহাম

    হেড টু হেড

    • দুইদলের শেষ ৮ দেখায় ৫ বারই জিতেছে সিটি।
    • ইতিহাদে শেষ ৪ বারের ৩ বারই হেরেছে, গতবার এই ফিক্সচারে চেলসি বিধ্বস্ত হয়েছিল ৬-০ ব্যবধানে। প্রিমিয়ার লিগে চেলসির সবচেয়ে বড় হারও ছিল সেটা।
    • সিটিকে হারাতে পারলে নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো টানা ৮টি অ্যাওয়ে ম্যাচ জেতার রেকর্ড গড়বে চেলসি। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন