• আফগানিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ
  • " />

     

    কর্নওয়াল ঝড়ে লক্ষ্ণৌয়ে লন্ডভন্ড আফগানিস্তান

    ১ম দিন, স্টাম্পস
    আফগানিস্তান ১ম ইনিংস ১৮৭ অল-আউট (আহমাদি ৩৯, জাজাই ৩২, কর্নওয়াল ৭/৭৫, হোল্ডার ২/২২)
    ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস ৬৮/২* (ক্যাম্পবেল ৩০*, ব্রুকস ১৯*, রশিদ ১/২৪) 
    ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১১৯ রানে পিছিয়ে 


    রাকিম কর্নওয়ালের ৭ উইকেটে লক্ষ্ণৌতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে এগিয়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৮৪ রানে ১ উইকেট থেকে হুট করেই ১১১ রানে ৭ উইকেটে পরিণত হয়েছিল আফগানিস্তান। এই ৬ উইকেটের ৪টিই নিয়েছেন কর্নওয়াল, এর আগে-পরে আরও ৩টি নিয়ে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্টটি স্মরণীয় করে রেখেছেন এই অফস্পিনার। আফগানিস্তানের ১৮৭ রানের জবাবে দ্রুত ২ উইকেট হারালেও জন ক্যাম্পবেল ও শামার ব্রুকস আগলে রেখেছেন উইন্ডিজকে, আফগানিস্তানের চেয়ে ১১৯ রানে পিছিয়ে থেকে ১ম দিন শেষ করেছে তারা। 

    লক্ষ্ণৌয়ের একানা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের প্রথম টেস্টে টসে জিতে ফিল্ডিং নিয়েছিলেন উইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। তবে দুই আফগান ওপেনার ইব্রাহিম জাদরাম ও জাভেদ আহমাদি হতাশ করে যাচ্ছিলেন তাদের। কেমার রোচ ও হোল্ডারকে মনে হচ্ছিল নির্বিষ। প্রথম ব্রেকথ্রু দিয়েছেন পরে কর্নওয়ালই। সুইপ করতে গিয়ে লেগস্লিপে হোল্ডারের হাতে ক্যাচ দিয়েছেন ইব্রাহিম জাদরান, যদিও আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে তাকে সন্তুষ্ট মনে হচ্ছিল না খুব একটা। অবশ্য এ সিরিজে ডিআরএস নেই বলে কিছু করারও ছিল না তার। 
     


    কর্নওয়াল-ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে আফগানিস্তান/উইন্ডিজ ক্রিকেট


    ২য় উইকেটে জাভেদ আহমাদি ও ইহসানউল্লাহ ৫৬ রানের জুটিতে আফগানদের এগিয়ে নিচ্ছিলেন। জোমেল ওয়ারিকানকে তুলে মারতে গিয়ে বিপত্তি ঘটিয়েছেন আহমাদি, লং-অফে ধরা পড়েছেন সহজ ক্যাচ দিয়ে। লাঞ্চের ঠিক আগে মূলত এই উইকেটেই বাঁধ ভেঙে গেছে আফগানিস্তানের, তাদের ওপর চড়াও হয়েছে কর্নওয়াল-ঝড়। কর্নওয়ালের সোজা হয়ে যাওয়া বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়েছেন ইহসানউল্লাহ, লাঞ্চের আগে তৃতীয় উইকেট হারিয়েছে আফগানরা। 

    লক্ষ্ণৌয়ের এ উইকেটে প্রথম দিন থেকেই টার্ন মিলেছে অনেক, তবে উইকেট মিলেছে সোজা বলেই। লাঞ্চের পর কর্নওয়ালের বলে একে একে ফিরেছেন রহমত শাহ, নাসির জামাল, আসগর আফগান ও আফসার জাজাই। আরেকদিকে তার প্রতিরূপ রশিদ খানকে ফিরিয়েছিলেন হোল্ডার, চা-বিরতিতে আফগানিস্তান গেছে ৮ উইকেট হারিয়ে। 

    শেষ সেশনে বাকি থাকা দুই উইকেট ভাগ করে নিয়েছেন হোল্ডার ও কর্নওয়াল। কর্নওয়াল শেষ পর্যন্ত বোলিং শেষ করেছেন ৭৫ রানে ৭ উইকেট নিয়ে। উপমহাদেশে কোনও ক্যারিবীয় স্পিনারের এটিই সেরা বোলিং, এশিয়ার মাটিতে দ্বিতীয় সেরা। 

    ব্যাটিংয়ে নেমে ক্রেইগ ব্রাথওয়েট ও ক্যাম্পবেলের শুরুটা ভালই ছিল মোটামুটি, তবে ৩ ওভার ও ৭ রানের ব্যবধানে ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছিল উইন্ডিজ। অভিষিক্ত আমির হামজার বলে এলবিডব্লিউ হয়েছেন ব্রাথওয়েট, এরপর রশিদ খানের স্বপ্নের এক ডেলিভারিতে স্লিপে ক্যাচ দিয়েছেন শেই হোপ। লেগ-মিডলে পড়ে টার্ন করে বেরিয়ে যাওয়ার আগে বলটা ছুঁয়ে গিয়েছিল হোপের আউটসাইড-এজ। 

    তবে ক্যাম্পবেল-ব্রুকসের অবিচ্ছিন্ন ৩৪ রানের জুটি দিনটা পুরোপুরি করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের।