• লা লিগা
  • " />

     

    ফাতির আরেক ইতিহাসে লেভান্তে-বাধা পেরুল বার্সেলোনা

    ওসাসুনার বিপক্ষে ১৬ বছর বয়সে গোল করে হয়েছিলেন ক্লাবের সবচেয়ে কনিষ্ঠ গোলদাতা। এরপর ডিসেম্বরে চ্যাম্পিয়নস লিগে ইন্টার মিলানের সঙ্গে গোল করে হয়েছলেন চ্যাম্পিয়নস লিগের সবচেয়ে কম বয়সী গোলদাতা। আনসু ফাতি এবার আরেকটা রেকর্ড নতুন করে লেখালেন। লা লিগার ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সে জোড়া গোলের কীর্তি এখন তার। কাল লেভান্তের বিপক্ষে তার দুই গোলেই ২-১ ব্যবধানের জয় নিয়ে ফিরতে পেরেছে বার্সেলোনা।

    ম্যাচটা অবশ্য মোটেই সহজ ছিল না বার্সেলোনার জন্য। এই লেভান্তের মাঠেই গিয়ে আগের বার হেরে এসছি ৩-১ গোলে। আর শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে পয়েন্ট ঘোঁচানোর একটা চাপ তো ছিলই। সুয়ারেজ না থাকায় কিকে সেতিয়েন তরুণ আনস ফাতির ওপর ভরসা রখবেন আর একবার। ম্যাচের শুরু থেকেই অবশ্য বার্সার আক্রমণ আছড়ে পড়তে থাকে লেভান্তের গোলবারে। মেসির বাঁ পায়ের শট একদম কাছ থেকে ফিরিয়ে দেন লেভান্তে গোলরক্ষক। তবে প্রথম গোলের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি বার্সাকে।

    এবার কারিগর মেসি তার দুর্দান্ত ত্রু বলটা বাঁ দিক থেকে দারুণ এক দৌড়ে ধরে ফেলেন ফাতি। সামনে গোলরক্ষক ফার্নান্দেজ ছাড়া কেউ ছিল না, তার পায়ের ঠিক ফাঁক দিয়ে বলটা জালে জড়িয়ে দেন। মিনিট খানেকের মধ্যেই ফাতির সঙ্গে আবার উদযাপনের সুযোগ পেয়ে বার্সাও। এবারও উৎস মেসি। ট্রেডমার্ক এক দৌড়ে ঢুকে গিয়েছিলেন বক্সের ভেতরে, কিন্তু শট নিতে না পেরে বল দিয়েছিলেন বাঁয়ে থাকা ফাতিকে। ফাতির শটটা ছিল কঠিন কোণ থেকে নেওয়া, দশবারের মধ্যে হয়তো সেটা নয়বারই ঠেকিয়ে দিতেন ফার্নান্দেজ। কিন্তু কাল কীভাবে যেন তার পায়ের ফাঁক গলে জালে জড়িয়ে গেল। প্রথমার্ধেই গোল করার আরও গোটা দুয়েক পরিষ্কার সুযোগ পেয়েছিল বার্সা, আরও নির্দিষ্ট করে বললে আঁতোয়া গ্রিজমান। কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি সুযোগ। নেলসন সেমেদোর ডান পায়ের শট পোস্টে লেগে বাইরে চলে না গেলেও আরও এক গোলে এগিয়ে যেতে পারত বার্সা।

    দ্বিতীয়ার্ধে লেভান্তে একটু গা ঝাড়া দিয়ে ওঠে। একবার টের স্টেগেনেকটা দারুণ সেভ করেছেন। তবে শেষ সময়ে এসে বার্সা আরেকটু চাপে পড়ে যায়। ৮৭ মিনিটে বক্সের অত কাছ থেকে ফাঁকায় পেয়েও বল পোস্টে রাখতে পারেননি মার্টি। তবে যোগ করা সময়ে রচিনার বাঁ পায়ের দারুণ শট টের স্টেগেনকে ফাঁকি দিয়ে জড়িয়ে যায় জালে। শেষ সময়েও আরেকটা সুযোগ পেয়েছিলেন রচিনা, তবে গোল হয়নি।

    এই জয়ে রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধানে তিনে নামিয়ে নল বার্সা, লা ল্গার শিরোপার লড়াই ও এখন দারুণ জমজমাট।