• সিরি আ
  • " />

     

    সংখ্যায় সংখ্যায় : মেসি-রোনালদোর হাজার, হালান্ডের ছয়ে নয়

    শনিবার ইউরোপিয়ান লিগে রেকর্ড হয়েছে অনেক। এর ভেতর লিওনেল মেসি আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোই আলাদা করে সব আলো কেড়ে নিয়েছেন। সঙ্গে যোগ দিয়েছেন নতুন তারকা এর্লিং ব্রুট হালান্ডও। 

    ১০০০
    এইবারের বিপক্ষে ৪ গোল দিয়ে হাজার পূরণ হয়েছে মেসির। ৬৯৬ গোল আর ৩০৬ অ্যাসিস্ট মিলিয়ে গো করা আর করানোর হিসেবে প্রথম ফুটবলার হিসেবে হাজারের মাইলফলক ছুঁয়েছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর।

     


    একই রাতে ক্যারিয়ারের ১০০০ তম ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। স্পোর্টিং সিপির হয়ে ৩৩, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ২৯২, রিয়াল মাদ্রিদে ৪৩৮, জুভেন্টাসে এখন পর্যন্ত ৭৩ ম্যাচ খেলেছেন পর্তুগিজ। আর জাতীয় দলের রোনালদো খেলেছেন ১৬৪। এক হাজার ম্যাচে গোল আর অ্যাসিস্ট মিলিয়ে রোনালদোর সংখ্যাটা ৯৭৫ (৭৫৫ গোল, ২২০ অ্যাসিস্ট)। মেসির হাজার পূরণ করতে লেগেছে ৮৩৫ ম্যাচ। 

    ১১/১১ 
    রোনালদোর বয়স ৩৫। কিন্তু বয়সের সঙ্গে তার ধার যেন আরও বাড়ছে। সিরি আ-তে স্পালের বিপক্ষে ক্যারিয়ারের হাজারতম ম্যাচেও গোল করেছেন রোনালদো। তাতে সিরি আ-র ইতিহাসে মাত্র তৃতীয় ফুটবলার হিসেবে টানা ১১ ম্যাচে গোলের রেকর্ড হয়েছে পর্তুগিজ কিংবদন্তীর। বাকি দুইজন গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা (১৯৯৪-৯৫) ও ফাবিও কোয়ালিয়ারেল্লা (২০১৮-১৯)।



     
    এর্লিং ব্রুট হালান্ড গোল করেছেন আবার। বুন্দেসলিগায় এখন ৬ ম্যাচে ৯ গোল তার। ৬ ম্যাচে গলের হিসাবে বুন্দেসলিগার ইতিহাসে এটাই সর্বোচ্চ। আর সবমিলিয়ে মৌসুমে ৪০ গোল হয়ে গেছে হালান্ডের, তাও মাত্র ৩৭ ম্যাচে। মানুষ না অন্যকিছু?  

    ৩৩ 
    লেভান্তের বিপক্ষে সবমিলিয়ে মোট ৩৩টি ক্রস করেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। এরপরও গোলশূন্য থেকেছে তারা। লা লিগায় এই মৌসুমে এক ম্যাচে এর চেয়ে বেশি ক্রস হয়নি। 

    ৬১৫১ 
    লা লিগায় দলগত গোলের হিসাবে অবশেষে রিয়াল মাদ্রিদকে পেছনে ফেলতে পেরেছে বার্সেলোনা। এইবারকে ৫-০ গোলে হারিয়ে রিয়ালের ৬১৫০ গোল টপকে গেছে তারা। সবশেষ ৫৭ বছর আগে গোলের হিসাবে এগিয়ে ছিল বার্সেলোনা। 

    ৪০ 
    এইবারের বিপক্ষে ম্যাচের ৪০ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ হয়েছে মেসির। বার্সা ক্যারিয়ারে এটি মেসির দ্বিতীয় দ্রুততম সময়ে হ্যাটট্রিক।