• জিম্বাবুয়ের বাংলাদেশ সফর
  • " />

     

    বাংলাদেশের নতুন ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম

    মাশরাফি বিন মুর্তজার পর ওয়ানডেতে বাংলাদেশের নতুন অধিনায়ক করা হয়েছে তামিম ইকবালকে। জিম্বাবুয়ে সিরিজের শেষ ম্যাচের আগে অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন মাশরাফি, সে ম্যাচ দিয়েই অধিনায়ক হিসেবে বিদায় জানানো হয়েছে তাকে। ম্যাচশেষের পর মাশরাফিকে কাঁধে তুলেছিলেন তামিম, অন্যান্য সতীর্থের মধ্যে। এবার সেই তামিমের কাঁধেই গেল মাশরাফির রেখে যাওয়া দায়িত্ব। 

    তামিমকে দীর্ঘমেয়াদেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন, “সর্বসম্মতিক্রমে তামিম ইকবালকে নির্ধারিত করা হয়েছে। রিয়াদ কতোদিনের জন্য আছে? সময় থাকে নাকি? হ্যাঁ, অনির্দিষ্টকালের জন্য।”

    এর আগে মাশরাফির পর স্বল্প মেয়াদে কাউকে দায়িত্ব দেওয়ার ভাবনা থেকেও সরে এসেছে বিসিবি, “একটা চিন্তা ছিল, সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য একজনকে করা হবে, সামনের বছর গিয়ে বদলাব। কিন্তু এখন এটা না। বোর্ড যেভাবে সিদ্ধান্ত নেয়, সেভাবেই নিয়েছি। সময় বেঁধে দেওয়া নেই (তামিমের জন্য)।”
     


    এর আগে সহ-অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পালন করার সঙ্গে শেষ বিশ্বকাপের পর শ্রীলঙ্কা সিরিজে মাশরাফির চোটের কারণে নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছিল তামিমকে। সেখানে বাংলাদেশ হয়েছিল হোয়াইটওয়াশ। এছাড়া এর আগে এক টেস্টেও বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি। 

    সাকিব আল হাসানের নিষেধাজ্ঞার পর টেস্টে মুমিনুল হক, টি-টোয়েন্টিতে মাহমুদউল্লাহকে দায়িত্ব দিয়েছে বিসিবি। তামিমকে ওয়ানডেতে বেছে নেওয়ার পেছনে বিশেষ কোনও কারণ বলেননি নাজমুল, “এটা বলা মুশকিল। বোর্ড সিদ্ধান্ত নেয়। বোর্ড সবাইকে দেখেছে। অনেকে আগ্রহীও না। সবার কথাই চিন্তা করেছে। এরপর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।” 

    এর আগে সহ-অধিনায়কত্ব করলেও নিয়মিত অধিনায়কের অনুপস্থিতিতে দায়িত্ব না পাওয়ার ঘটনা ছিল তামিমের ক্ষেত্রে। এবার তাকে লম্বা সময়ের জন্যই বিবেচনা করছে বোর্ড, “নিশ্চয়তার কিছু নেই। লম্বা সময়ের জন্যই আছে। আমরা তাকে করেছি দীর্ঘমেয়াদেই।” 

    “আসলে একটাই কথা, একটা ধারণা ছিল স্বল্প সময়ের জন্য একজনকে। এখন পর্যন্ত তাকে নির্বাচিত করেছি, আমরা চাই সে লম্বা সময়ের জন্যই থাকুক”, বলেছেন নাজমুল। 

    জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের পর পাকিস্তানে গিয়ে একটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ। এরপর মে মাসে আয়ারল্যান্ডে তিনটি ওয়ানডে খেলার কথা তাদের। 

    আপাতত তামিমের সহকারি হিসেবে রাখা হয়নি কাউকে। 
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন