• লা লিগা
  • " />

     

    ২৮৩০ কিলোমিটার ড্রাইভ করে লুকিয়ে স্পেন ছাড়লেন সেল্টা ফুটবলার

    করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ এখন ‘লকডাউনে’। ইউরোপের ইতালি, স্পেনের মতো করোনার প্রকোপে অপেক্ষাকৃত বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোতে তো জরুরী অবস্থা চলছে, অতি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে পা রাখা মানা। অথচ এমন কড়াকড়ির মধ্যেই স্প্যানিশ ক্লাব সেল্টা ভিগোর উইঙ্গার পিওনে সিস্তো ক্লাবকে না জানিয়ে  স্পেন ছেড়ে নিজ দেশ ডেনমার্কে পাড়ি জমিয়েছেন, তাও আবার ব্যক্তিগত গাড়ি ড্রাইভ করে।

    কাজটা করার আগে ক্লাব কর্তৃপক্ষকে জানানোর প্রয়োজনও বোধ করেননি সিস্তো। প্রায় ২৬ ঘণ্টা গাড়ি চালিয়ে ২৮৩০ কিলোমিটার দূরত্ব পাড়ি দিয়ে ডেনমার্কে পৌঁছেছেন তিনি। সেখানে পৌঁছে এর পর ক্লাবকে নিজের স্পেন ছাড়ার কথা জানিয়েছেন ২৫ বছর বয়সী এই উইঙ্গার। ডেনমার্কে করোনা হানা দিলেও সেখানকার পরিস্থিতি স্পেনের মতো ভয়াবহ নয়। লকডডাউন হলেও সেখানেও বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকার বাধ্যবাধকতাও নেই। আর নিজ দেশের নাগরিকদের জন্যও সীমানা উন্মুক্ত রেখেছে দেশটি।


    স্পেনে জরুরী অবস্থা ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরই দেশ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন সিস্তো। তবে বিমান যোগাযোগ বন্ধ থাকায় সড়কপথেই স্পেন থেকে ডেনমার্কের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন তিনি। সেল্টা ভিগো কর্তৃপক্ষ সিস্তোর এই শৃঙ্খলাভঙ্গের বিষয়টিকে অভ্যন্তরীণভাবেই নিষ্পন্ন করার কথা জানিয়েছে। অতি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ভ্রমণ নিষিদ্ধ করে আইনভঙ্গকারীদের ৬০০ ইউরো জরিমানা করার বিধান রয়েছে স্পেনে।

    উগান্ডায় জন্ম নিলেও সিস্টোর বয়স যখন মোটে ২ মাস তখনই পরিবারের সঙ্গে ডেনমার্কে পাড়ি জমান তিনি। ২০১৬ সালে ড্যানিশ ক্লাব মিটজিল্যান্ড থেকে সেল্টা ভিগোতে এসেছিলেন এই উইঙ্গার। ক্লাবটির হয়ে এখন পর্যন্ত ১০০-এর বেশি ম্যাচ খেলেছেন তিনি, যার মাঝে এই মৌসুমে মাঠে নেমেছেন মোট ১৯ ম্যাচে।