• সিরি আ
  • " />

     

    ২৫ মিনিট অক্সিজেন ছাড়া ছিলাম : পেপে রেইনা

    করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হওয়ার অভিজ্ঞতা কতোখানি ভয়াবহ হতে পারে সেটা ভালোভাবেই টের পেয়েছেন  সাবেক স্প্যানিশ গোলরক্ষক পেপে রেইনা। ইংলিশ ক্লাব অ্যাস্টন ভিলা থেকে ধারে   বর্তমানে নাপোলিতে খেলছেন তিনি। সেখানেই সপ্তাহ দুয়েক আগে তার শরীরে বাসা বাঁধে এই ভাইরাস। এরপর থেকেই জীবন নিয়ে রীতিমত যুদ্ধ করতে হয়েছে তাকে। প্রতিটি মুহূর্তই নতুন একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে উপস্থিত হচ্ছিল তার সামনে। ইতালিয়ান প্রচারমাধ্যম কোরিয়ের দেল্লো স্পোর্তের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে নিজের সেই ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেছেন রেইনা।

    করোনা ভাইরাসের থেকে ক্রমেই সেরে ওঠার প্রক্রিয়ায় থাকা রেইনা কঠিন সেই সময়ের স্মৃতিচারণ করেন, “প্রথম লক্ষণ দেখা দেওয়ার পর খুবই ক্লান্ত লাগছিল আমার। জ্বর, শুকনো কাশি, মাথা ব্যথা ভালোই হচ্ছিল না। সারাক্ষণ মারাত্মক ক্লান্তি অনুভব করতাম।”

    “সবচেয়ে বাজে অবস্থা হয়েছিল যখন আমি শ্বাস নিতে পারছিলাম না, প্রায় ২৫ মিনিট আমি অক্সিজেন ছাড়া ছিলাম। এটা আমার জীবনের সবচেয়ে খারাপ মুহূর্ত ছিল। যখন আমি বুঝেছিলাম যে, আমি অক্সিজেন পাচ্ছি না, তখন মারাত্মক ভয় কাজ করেছিল। সেই মিনিটগুলো আমি কী ভয়ের মধ্যেই না কাটিয়েছি, মনে হচ্ছিল আমার গলা বন্ধ হয়ে গেছে। আর সে কারণে আমি ৬-৮ দিন ঘরের ভেতরে কাটিয়েছি।”

    করোনার সঙ্গে রেইনার নিজের লড়াই চলতে থাকলেও এমন সময়েও সুবিধা বঞ্চিতদের দুরবস্থার কথা ভাবাচ্ছে তাকে, “আমার বাসায় আমার স্ত্রী, ৫ সন্তান এবং শ্বশুর পক্ষের দুজন রয়েছেন। সুতরাং একাকীত্বের কোনও সমস্যা নেই। আমরা সুবিধাজনক অবস্থায় আছি, আমাদের ঘরও বেশ বড়, লাগোয়া বাগানও আছে। তবে আমি তাদের কথা ভাবছি যারা ৭০ স্কয়ার মিটারের ফ্ল্যাটে দুই বাচ্চাসহ থাকে, আমার মতে, দারুণ মনোবল দেখিয়ে আসল লড়াইটা তারা লড়ছে।”