• লা লিগা
  • " />

     

    বেতন কমানো নিয়ে সমালোচনায় দুঃখ পেয়েছেন সুয়ারেজ

    বৈশ্বিক মহামারির এমন একটা সময়ে ক্লাবগুলো অর্থনৈতিক ভারসাম্য ধরে রাখতে, নন-প্লেয়িং স্টাফদের বেতন-ভাতা দিতে এবং নিজ নিজ দেশের সরকারকে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আর্থিক সহযোগিতা করতে গিয়ে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছে। স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা খেলোয়াড়দের বেতন-ভাতা কমানো নিয়ে তাদের সাথে আলোচনা করতে গিয়ে শুরুতে খেলোয়াড়দের রাজি করতে পারেনি। যদিও পরবর্তীতে খেলোয়াড়রা উদ্যোগী হয়েই ৭০ শতাংশ বেতন কম নেওয়ার ঘোষণা দেন, সঙ্গে নন-প্লেয়িং স্টাফদের বেতন প্রদানেও সাহায্যের অঙ্গীকার করেন। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত নিতে বিলম্ব করায় সব মহল থেকে বার্সা খেলোয়াড়দের দিকে তখন ছুটে যায় সমালোচনার তীর। আর এতেই দুঃখ পেয়েছেন দলটির উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ড লুইস সুয়ারেজ।

    উরুগুয়ের রেডিও স্টেশন স্পোর্ট৮৯০-র সঙ্গে আলাপে সুয়ারেজ বলেন, “কষ্ট পেয়েছি কারণ আমরাই প্রথম আলোচনা করে ঐকমত্যে পৌঁছেছি। আমরা জানি ক্লাব কী অবস্থায় আছে, বিশ্ব কী অবস্থায় আছে, সুতরাং মিটিংয়ের জন্য সেভাবে অ্যাজেন্ডাও তৈরি করতে হয়নি। 

    “সবাই বলছে যে, বাস্কেটবল এবং হ্যান্ডবল খেলোয়াড়রা আমাদের আগে সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে। আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে একটু দেরি হয়েছে, কারণ আমরা ক্লাবের কর্মচারীদের এবং নিজেদের জন্য সম্ভাব্য সেরা সিদ্ধান্তটি নিতে চাচ্ছিলাম।”

    এছাড়া বেশ কিছু সময় ধরে বার্সা বোর্ড এবং খেলোয়াড়দের মাঝে বিভিন্ন বিষয়ে বিপরীত মেরুতে অবস্থানকেও সিদ্ধান্ত নিতে দেরির পেছনে একটি কারণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। মেসি নিজেও বেতন ছাড়ের ঘোষণা দিতে করা ইনস্টাগ্রাম পোস্টে বার্তোমেউকে হালকা খোঁচা দিয়েছেন আলোচনায় খেলোয়াড়দের স্বার্থকে খাটো করে দেখার জন্য।

    ইউরোপে খেলা সুয়ারেজের অন্য উরুগুইয়ান সতীর্থ এডিনসন কাভানি এবং ডিয়েগো গডিনরা দেশে ফিরে গেলেও বার্সা ফরোয়ার্ড বর্তমানে স্পেনেই অবস্থান করছেন।