• সিরি আ
  • " />

     

    স্বেচ্ছায় ৪ মাসের বেতন ছেড়ে দিলেন রোমার ফুটবলাররা

    বেতন কমানো নিয়ে ক্লাব এবং খেলোয়াড়দের মাঝে দর-কষাকষির কথা এখন প্রায়শই শিরোনাম হচ্ছে। তবে এক্ষেত্রে রীতিমত দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সিরি আ ক্লাব এএস রোমার খেলোয়াড়েরা। অর্থনৈতিক অচলাবস্থার এই সময়ে মৌসুমের বাকি অংশে স্বেচ্ছায় আর কোনও বেতন নেবেন না তারা। রোমার ঘোষণা অনুযায়ী ক্লাবের খেলোয়াড়রা চার মাসের বেতন পুরোপুরি ছেড়ে দিয়েছেন, যাতে নন-প্লেয়িং স্টাফদের বেতন-ভাতা দিতে ক্লাবের সমস্যা না হয়।

    করোনাভাইরাসের কারণে খেলা বন্ধ হওয়ার পরপরই ক্লাবের আর্থিক ভারসাম্য অক্ষুন্ন রাখতে নন-প্লেয়িং স্টাফদের বেতন ইতালিয়ান সরকারের সেফটি স্কিমের মাধ্যমে দেওয়া হচ্ছিল। তবে খেলোয়াড়দের এই বেতন ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তের ফলে এখন ক্লাব সরকারী সহায়তা ছাড়াই তাদের বেতন পরিশোধ করতে পারবে।

    বিষয়টি নিয়ে দেওয়া এক বিবৃতিতে রোমা জানিয়েছে, “করোনাভাইরাসের কারণে ক্লাবের অর্থনৈতিক সংকট নিরসনে ফার্স্ট টিমের সকল খেলোয়াড় এবং কোচ পাওলো ফনসেকা তাদের ৪ মাসের বেতন স্বেচ্ছায় ছেড়ে দিয়েছেন। এছাড়া খেলোয়াড়, কোচ এবং কোচিং স্টাফরা মিলে ক্লাবের যেসব কর্মচারীরা বর্তমানে সরকারী স্কিমের আওতায় বেতনভুক্ত আছেন, তারাও যাতে পূর্ণ বেতন পায় তাও নিশ্চিত করবে।”

    এদিকে খেলোয়াড়রা স্বেচ্ছায় বেতন ছাড় নেওয়ায় খুশি ক্লাবটির প্রধান নির্বাহী গুইদো ফিয়েঙ্গা, “আমরা রোমায় সবসময় একতার কথা বলি। বেতন ছেড়ে দেওয়ার মাধ্যমে খেলোয়াড়, কোচ এবং তার স্টাফরা সেই বিষয়টিকেই অক্ষুন্ন রেখেছেন। এডিন জেকো (ক্লাব অধিনায়ক), অন্য সব খেলোয়াড় এবং পাওলো এই বেতন ছাড়ের মাধ্যমে এটাই প্রমাণ করেছেন যে, তারা ক্লাবের বর্তমান সংকটের বিষয়টি অনুধাবন করেন। এছাড়া ক্লাবের কর্মচারীদের প্রতি সহায়তার জন্যও তারা বিশেষ ধন্যবাদ প্রাপ্য।”

    সিরি আ-তে রোমা ছাড়াও জুভেন্টাস, ক্যালিয়ারি, এবং পার্মার খেলোয়াড়রাও এরই মধ্যে বেতনের নির্দিষ্ট অংশ ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।