• ক্রিকেটারদের আলাপ
  • " />

     

    প্লেস্টেশনে আফিফ সেরা, লিটনের ভয় তামিমের খোঁচাকে

    প্লেস্টেশনে আফিফ সেরা, লিটনের ভয় তামিমের খোঁচাকে    

    খেলার বাইরে খেলোয়াড়দের বড় একটা সময় কাটাতে হয় হোটেলে। সেটা ক্রিকেটার হোক বা ফুটবলারদের। চার দেয়ালে সময় কাটাতে প্লেস্টেশন সবার মধ্যেই এখন তুমুল জনপ্রিয়। মেসি-আগুয়েরোর খেলার কথা অনেকেই জানেন, অনেক ফুটবলারই নিজেদের প্লেস্টেশন প্রীতি জানান দিয়েছেন টুইটার-ফেসবুকে। বাংলাদেশের ক্রিকেটাররাও ব্যতিক্রম নন। আজ তামিম ইকবালের লাইভ আড্ডায় সেটা নিয়েই একদফা খুনসুটি হয়ে গেল জাতীয় দলের সতীর্থদের মধ্যে। আফিফ সবচেয়ে ভালো খেলেন, সেটা স্বীকার করে নিলেন সবাই। তবে লিটন কেন তামিমের সাথে খেলতে চান না, ফাঁস করলেন সেই গোমর।

    তামিমই মজা করতে করতে বলছিলেন, আফিফ সবচেয়ে ভালো খেলেন। তবে এর মধ্যে তামিম একটা ছয় গোল দিয়েছেন। এরপরেই লিটনের কাছে জানতে চাইলেন, কেন তিনি তামিমের সাথে খেলেন না। মুমিনুল তখন পাশ থেকে টিপ্পনী কাটলেন, এরপর থেকে আফিফের সাথে তামিমের ম্যাচ হলে তিনি আফিফের পক্ষে বাজি ধরবেন।

    লিটন অবশ্য পরে তামিমের সাথে না খেলার কারণ ব্যাখ্যা করলেন। তাঁর ভাষায়, ‘তামিম ভাইয়ের সাথে প্রথমবার যখন খেললাম, এরপর থেকে তামিম ভাই জেতে, আমিও জিতি। এমন না জিতিই না আমি। কিন্তু দুইটা হারার পর একটা জিতলেই তামিম ভাই খোঁটা দিতেই থাকে। তামিম ভাই ২০ মিনিটে ছয় গোল খেয়েছেন। কিন্তু একটা ম্যাচ জিতেছেন, সেটা নিয়ে উনি কথা বলতেই থাকেন।’

    তামিম এরপর আত্মপক্ষ সমর্থন করলেন, ‘আফিফ আমার চেয়ে অনেক ভালো প্লেয়ার। আমি তো খেলিই না। আমি বলেছিলাম এই সিরিজে ওকে অন্তত একটা ম্যাচ হারাব।’ এরপর তামিম লিটনকে বললেন, অন্তত একটা ম্যাচ তার সঙ্গে খেলার জন্য। লিটন অবশ্য রাজি হতে চাইলেন না। তামিমের খোঁচাকে যে তার বড় ভয়!

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন