• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    ভারত-আফগানিস্তানের বিপক্ষে পরের মৌসুমের সূচি চূড়ান্ত করলো অস্ট্রেলিয়া

    ভারত ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিজেদের ঘরোয়া আন্তর্জাতিক মৌসুমের সূচি ঘোষণা করছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। কভিড-১৯ মহামারির পর নিজেদের ঘরোয়া মৌসুম নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া শুক্রবার ছেলে ও মেয়েদের ২০২০-২১ মৌসুমের পুরো সূচি ঘোষণা করবে বলে জানিয়েছে ক্রিকেটডটকমডটএইউ। ভারত প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলবে দিবা-রাত্রির টেস্ট।

    আফগানিস্তানের সঙ্গে একমাত্র টেস্টটিও হবে দিবা-রাত্রির, যেটি হবে পার্থ স্টেডিয়ামে। এ টেস্ট ওয়াকায় হবে, এমন শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত সেটি হচ্ছে পার্থের নতুন স্টেডিয়ামেই। তবে ভারতের বিপক্ষে কোনও টেস্ট হবে না এই শহরে।

    আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম টেস্ট খেলার পরই ডিসেম্বরে অজিদের প্রতিপক্ষ হিসেবে উপস্থিত হবে ভারত। বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফিতে দুই দল খেলবে ৪টি টেস্ট, যার প্রথমটি হবে ব্রিসবেনের গ্যাবায়। অ্যাডিলেডের দ্বিতীয় টেস্টটি হবে দুই দলের প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্ট ম্যাচ। শেষ দুটি টেস্ট হবে যথাক্রমে এমসিজি এবং এসসিজিতে।

    করোনাভাইরাসের কারণে বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা থাকলেও আপাতত ভাইরাসের প্রকোপ কিছুটা কমে আসায় এই সিরিজ দুটি যথাসময়ে আয়োজনের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। যদিও করোনা পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে প্রয়োজন অনুযায়ী সিরিজগুলোর সূচি পরিবর্তিত হতে পারে।

     


    টেস্টে গ্যাবায় ১৯৮৮ সালের শেষ হারের মুখ দেখেছিল অস্ট্রেলিয়া। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেই হারের পর এই মাঠে শেষ ৩১ ম্যাচে অপরাজিত অজিরা। টেস্ট ক্রিকেটে নির্দিষ্ট একটি ভেন্যুতে কোনও দলের সবচেয়ে বেশি সময় অপরাজিত থাকার রেকর্ড এটি। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সেই ম্যাচের পর শেষ ৩১ ম্যাচের মাঝে ২৪টি ম্যাচেই জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

    মূলত ভারতের বিপক্ষে ঘরের মাঠে খেলার পূর্ণ সুবিধা তুলে নিতেই ‘টেস্ট দুর্গ’ গ্যাবা দিয়ে সিরিজ শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। অধিনায়ক টিম পেইনের কথাতেও আছে তেমনই সুর, “আমরা যেকোনো মাঠে যেকোনো ধরনের উইকেটে খেলার জন্যই প্রস্তুত। তবে প্রথাগতভাবে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট গ্রীষ্ম শুরু হয় গ্যাবায়। সিরিজ শুরুর জন্য এটা দারুণ জায়গা। এখানকার উইকেটে আমাদের জন্য মানানসই, আর তাই আমরা সবাই সিরিজ শুরুর জন্য মুখিয়ে আছি।”

    ২০১৮-১৯ মৌসুমে ভারতের শেষ অস্ট্রেলিয়া সফরে গ্যাবায় কোনও ম্যাচ খেলতে হয়নি বিরাট কোহলিদের। তবে এবার অস্ট্রেলিয়ার ‘টেস্ট দুর্গ’ দিয়ে সফর শুরু করতে হলেও বিষয়টি খুব একটা ভাবাচ্ছে না ভারতীয় অধিনায়ককে, “আমরা গ্যাবায় খেলছি নাকি পার্থে, এটা আসলে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়। আমরা সব ফরম্যাটে বিশ্বের যেকোনো দলকে চ্যালেঞ্জ করতে পারি, এটাই মূল বিষয়। আমরা প্রস্তুত।”

    এদিকে দিবা-রাত্রির টেস্টের অভিজ্ঞতার দিক দিয়ে পরিষ্কারভাবে এগিয়ে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ঘরের মাঠে ৭টি ম্যাচ খেলে এখনও হারেনি তারা। অবশ্য ভারতও দিবা-রাত্রির টেস্টে হারের স্বাদ পায়নি এখনও, তবে দেশটি এমন টেস্ট খেলেছেই মোটে একটি। বাংলাদেশের বিপক্ষে সেই টেস্টে জয় পেতে খুব একটা বেগ পেতে হয়নি তাদের।

    গোলাপি বলের ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত অন্যতম সফল বোলার মিচেল স্টার্ক তাই ভারতের বিপক্ষে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে মুখিয়ে আছেন, “ভারতের বিপক্ষে গোলাপি বলে টেস্ট খেলাটা দারুণ হবে। সমর্থকরাও দিবা-রাত্রির টেস্ট দেখতে পছন্দ করে। আর ভারত একটি ম্যাচ খেলেছে, সুতরাং তারা বিষয়টির সঙ্গে একেবারে অপরিচিত নয়। তবে গোলাপি বলে আমাদের হোম রেকর্ড বেশ ভালো, তাই আমার মনে হয় আমরা কিছুটা এগিয়ে থাকব।”

     

    আফগানিস্তান এবং ভারতের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার সিরিজ সূচি

    অস্ট্রেলিয়া - আফগানিস্তান

    একমাত্র টেস্ট, ২১-২৫ নভেম্বর, পার্থ স্টেডিয়াম (দিবা-রাত্রি)

    অস্ট্রেলিয়া - ভারত

    প্রথম টেস্ট, ৩-৭ ডিসেম্বর, গ্যাবা

    দ্বিতীয় টেস্ট, ১১-১৫ ডিসেম্বর, অ্যাডিলেড ওভাল (দিবা-রাত্রি)

    তৃতীয় টেস্ট, ২৬-৩০ ডিসেম্বর, মেলবোর্ন

    চতুর্থ টেস্ট, ৩-৭ জানুয়ারি, সিডনি