• লা লিগা
  • " />

     

    বার্নাব্যু নয়, ট্রেনিং গ্রাউন্ডে মৌসুমের বাকি হোম ম্যাচ খেলবে রিয়াল

    সান্তিয়াগো বার্নাব্যু নয়, ভালদেবেবাস ট্রেনিং কমপ্লেক্সে মৌসুমের বাকি ম্যাচগুলোর জন্য হোমগ্রাউন্ড হিসেবে বেছে নিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। মার্চে স্থগিত হওয়ার পর জুনের ১১ তারিখ থেকে আবারও শুরু হচ্ছে লা লিগা। লিগে বাকি হোম ম্যাচগুলো রিয়াল খেলবে আলফ্রেড ডি স্টেফানো ট্রেনিং গ্রাউন্ডে।

    ক্লাব প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ জানিয়েছেন লিগ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনুমতিও মিলেছে তাদের। মূলত বার্নাব্যুর সংস্কারকাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে নিতেই আলফ্রেড ডি স্টেফানো গ্রাউন্ডকে বেছে নিয়েছে রিয়াল, "আলফ্রেড ডি স্টেফানোতে ম্যাচ খেলার অনুমতি মিলেছে আমাদের। বার্নব্যুর চলমান কাজ এগিয়ে নিতে এই সিদ্ধান্ত আমাদের কাজে আসবে।"


    ২০১৯ এ শুরু হওয়া সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর সংস্কার কাজ শেষ ২০২২ এ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। স্টেডিয়াম আধুনিকায়ন কাজ অবশ্য নির্ধারিত লক্ষ্যের আগেই শেষ হয়ে যাবে বলে আশা করছে রিয়াল মাদ্রিদ। 

    মার্চের ২ তারিখ সবশেষ বার্সেলোনার বিপক্ষে বার্নাব্যুতে খেলেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। ওই ম্যাচে রিয়াল জিতেছিল ২-০ গোলে। এরপর বৈশ্বিক মহামারীর কারণে স্থগিত করা হয় লিগ। মাঠে ফুটবল ফিরলেও দর্শক উপস্থিতিতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই ৬ হাজার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ট্রেনিংগ্রাউন্ডকে বেছে নেওয়ার সিদ্ধান্তে নিতে খুব বেশি ভাবতেও হয়নি রিয়ালকে।

    স্পেনে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ আকার ধারণ করার পর ভালদেবেবাস ট্রেনিং কমপ্লেক্সেও লকডাউন করে রাখা হয়েছিল। এই কমপ্লেক্সের আলফ্রেড ডি স্টেফানো ট্রেনিং গ্রাউন্ডের দর্শক ধারণক্ষমতা ৬ হাজার। মূলত রিয়াল মাদ্রিদের অনুশীলনের পাশাপাশি 'বি' দলের ম্যাচ আয়োজন হয় এখানে।

    লিগের ১১ ম্যাচ বাকি থাকতে বার্সেলোনার চেয়ে ২ পয়েন্টে পিছিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের অবস্থান পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে। এই ১১ ম্যাচের ৬টি (এইবার, ভ্যালেন্সিয়া, মায়োর্কা, গেটাফে, আলাভেস  ও ভ্যালেন্সিয়া) রিয়াল খেলবে নিজেদের নতুন মাঠে। ১৪ জুন আলফ্রেড ডি স্টেফানো গ্রাউন্ডে প্রথম ম্যাচে রিয়াল মুখোমুখি হবে এইবারের।  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন