• বাংলাদেশের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
  • " />

     

    আগস্টে আবাসিক ক্যাম্প শুরুর আগে জামালদের করোনা-পরীক্ষা করাবে বাফুফে

    অক্টোবর ও নভেম্বর মাসে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় পর্বের নতুন দিন-তারিখ দিয়েছে এএফসি। সবকিছু ঠিক থাকলে ছয় সপ্তাহ আগে ক্যাম্প শুরু হওয়ার কথা। সেই হিসেবে আগস্ট থেকে প্রস্তুতি শুরু করতে চায় বাফুফে। তবে ক্যাম্প শুরুর আগে ১৪ দিন ধরে সব ফুটবলার ও স্টাফকে করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছেন বাফুফের সহ সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ।

    বাংলাদেশ দলের কর্মপন্থা ঠিক করার জন্য আজ অনলাইনে বৈঠক করেছে বাফুফে। এর পরেই কাজী নাবিল জানান বাফুফের পরবর্তী পরিকল্পনার কথা। করোনা ভাইরাসের জন্য পরিস্থিতি কবে স্বাভাবিক হবে সেটি এখনো অনিশ্চিত। তবে বাফুফের সহ সভাপতি আশাবাদী, আগস্ট থেকে ক্যাম্প শুরু করতে পারবেন তারা। তবে সেটির আগে সবাইকে করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করাতে চান তারা, ‘আমরা আশা করছি জুন-জুলাইয়ের পর ক্যাম্প শুরু হতে পারে। অক্টোবরের অন্তত ছয়-সাত সপ্তাহ আগে ক্যাম্প করতে গেলে আগস্টে শুরু করতে হবে। সেজন্য আমাদের সব খেলোয়াড়কে করোনা পরীক্ষা করতে হবে। সেজন্য আমরা চিন্তা করছি আগস্টে প্রথম সপ্তাহে ক্যাম্প কল করব। এরপর আমরা খেলোয়াড় ও স্টাফ সবাইকে ধাপে ধাপে টেস্ট করব। এরপর সবাইকে আইসোলেশনে রাখা হবে। এর মধ্যে সবার ফিটনেস ট্রেনিং চলতে থাকবে। এটা করতে আমাদের ১৪ দিনের মতো সময় রাখতে হবে। যেন আগস্টের ২০-২২ তা্রিখ থেকে ক্যাম্প শুরু করা যায়। আমরা চেষ্টা করছি আগস্টের ১৬ থেকে কোচরা যেন যোগ দেন।’ জানিয়েছেন, আইসোলেশনের সময় নিয়মিত ভিত্তিতে খেলোয়াড়দের পরীক্ষা করা হবে যেন কেউ আক্রান্ত হলে আগে থেকেই সেটি তারা জানেন।

    আইসোলেশন বা পরে আবাসিক ক্যাম্প কোথায় হবে সেটার ব্যাপারে এখনো সিদ্ধান্ত নেয়নি বাফুফে। ঢাকা বা ঢাকার বাইরের কোনো ভেন্যুকেই বেছে নিতে পারে তারা। কাজী নাবিল বলেছেন, ‘আমরা ভাবছি,  ঢাকা বা ঢাকার আশেপাশে আবাসিক ক্যাম্প করতে পারি। বিদেশে ক্যাম্প করতে পারি কিনা সেটা দেখা হবে। এখানে অন্য দেশ আমাদের গ্রহণ করতে পারছে কিনা সেটাও একটা ব্যাপার।’

    আরেকটা বড় সিদ্ধান্ত অবশ্য নিতে হচ্ছে বাফুফেকে। অক্টোবরেই এএফসি কাপের ম্যাচ থাকার কথা বসুন্ধরা কিংসের। সেই হিসেবে তখন জাতীয় দলের সঙ্গে সূচিটা সাংঘর্ষিক হতে পারে। তখন জাতীয় দলের কিংসের ফুটবলারদের ক্যাম্প থেকে কবে ছাড়া হবে সেই প্রশ্নও উঠে আসছে। নাবিল এ নিয়ে এখনই স্পষ্ট করে কিছু বলেননি, ‘বসুন্ধরা কিংসের জন্য খেলোয়াড় ছাড়ার কোনো সিদ্ধান্ত এখনো নিতে পারি নাই। ফিফার নিয়মে ৭২ ঘন্টা আগে ছাড়তে হয়। তার আগে ছাড়া হবে কি না সেটা আমরা চিন্তা করে দেখব।’

    এর আগে এসএ গেমসের সময় খেলোয়াড় ছাড়া নিয়ে বাফুফের সঙ্গে ঝামেলাই হয়েছিল কিংসের। সেবার সময়মতো খেলোয়াড় ছাড়েনি বসুন্ধরা, সেজন্য পিছিয়ে গিয়েছিল ক্যাম্প।

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন