• লা লিগা
  • " />

     

    কিক অফের আগে : অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে বার্সেলোনার অগ্নিপরীক্ষা

    কবে, কখন

    বার্সেলোনা - অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ

    ন্যু ক্যাম্প

    ১ জুলাই, রাত ২.০০


    খুব কঠিন একটা সময়েই ডিয়েগো সিমিওনের অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে ন্যু ক্যাম্পে আতিথ্য দিচ্ছে বার্সেলোনা। পয়েন্ট টেবিলে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে পরিষ্কার ২ পয়েন্ট পিছিয়ে আছেন মেসিরা। আর সেই পয়েন্টের ব্যবধান দ্রুত ঘোচানোটাই যখন বার্সেলোনার লক্ষ্য, তখন তাদের সামনে হাজির হচ্ছে অ্যাটলেটিকো। এই মৌসুমে পয়েন্ট টেবিলে অবস্থান কিছুটা নড়বড়ে থাকলেও মৌসুমের শেষভাগে নিজেদের সামলে নিয়েছে সিমিওনের দল।

    দুর্দান্ত ফর্মে থাকা দল নিয়েই ন্যু ক্যাম্পে আসছেন কস্তা-ফেলিক্সরা। গত ফেব্রুয়ারিতে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারের পর টানা ১০ ম্যাচ অপরাজিত তারা, তার মাঝে শেষ চার ম্যাচে আবার টানা জয়। অবশ্য গত এক দশকে লা লিগায় অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে হারেনি বার্সেলোনা। মেসি-পিকেদের হোম ফর্মও ইর্ষনীয়। টানা ২৮ ম্যাচ অপরাজিত। তবে কিনা লিগে শেষ ৩ ম্যাচের মাঝে দুইবার ড্র করেছে কাতালান ক্লাবটি।


    তার মাঝে শেষ ম্যাচে সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে ম্যাচে দুইবার এগিয়ে থেকেও ড্র করে ফেরার পর থেকেই শুধু নেতিবাচক খবরই আসছে বার্সেলোনার ড্রেসিং রুম থেকে। একদিকে ‘ব্রাজিলিয়ান জাভি’ আর্থুরের দলবদল, আর কোচ সেতিয়েন এবং তার স্টাফদের মনোমালিন্যের খবর তো এখন ‘ওপেন সিক্রেট’। সঙ্গে গত সপ্তাহে ট্রেনিং গ্রাউন্ডে মেসি এবং গ্রিযমানের মাঝে বচসার খবর সমস্যা বাড়িয়েছে আরও।

    তবে এসবের অনেক কিছুই ঠিক হয়ে যেতে পারে, যদি অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে সমর্থকদের একটি দুর্দান্ত পারফরম্যান্স উপহার দিতে পারেন মেসিরা। যদিও ইন-ফর্ম অ্যাটলেটিকো আর সিমিওনের কৌশলের সামনে সেটা করা মোটেই সহজ হবে না। আর এই মৌসুমে অধারাবাহিকতার মাশুল দিয়ে টেবিলের অনেকটা নিচ থেকে ঘুরে আসতে হয়েছে সিমিওনের দলকে। তবে টানা জয়ে এখন টেবিলের তৃতীয় স্থানে অবস্থান পাকাপোক্ত হয়েছে। মৌসুমে এখন পর্যন্ত ৪ বার হেরেছে, লিগে তাদের চেয়ে কম হেরেছে শুধু রিয়াল মাদ্রিদ। তবে অনেকগুলো ড্রয়ের কারণেই মূলত এবার শিরোপার দৌড়ে অ্যাটলেটিকো নেই। তাই ন্যু ক্যাম্প থেকে পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে সেরা চারে নিজেদের অবস্থান আরও মজবুত করার লক্ষ্য থাকবে দলটির। 

    সব মিলে বার্সেলোনার জন্য এই ম্যাচটি শিরোপার দৌড়ে বড় ধরনের টার্নিং পয়েন্ট হতে পারে। এই ম্যাচে জয় যেমন রিয়ালের সঙ্গে শিরোপার দৌড়ে আত্মবিশ্বাস যোগাতে পারে মেসিদের জন্য, তেমনি আশানুরুপ ফল না এলে সমস্যা আরও ঘনীভূত হতে পারে ন্যু ক্যাম্পে।

    দলের খবর

    উসমান দেম্বেলে এবং ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং চোটের কারণে দলের বাইরতে রয়েছেন। তবে কাতালান ক্লাবটির জন্য ভালো খবর, চোট থেকে প্রায় সেরে উঠেছেন সার্জি রবার্তো। অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে তাকে স্কোয়াডে রাখা হতে পারে। ওদিকে নিষেধাজ্ঞার কারণে সেল্টার বিপক্ষে ম্যাচটি মিস করলেও আবারও প্রথম একাদশে ফিরছেন সার্জিও বুস্কেটস। আর সেল্টার বিপক্ষে বেঞ্চে থাকা আতোঁয়ান গ্রিযমান মেসি এবং সুয়ারেজের সঙ্গে মিলে আক্রমণ ত্রয়ী সাজাবেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

    চোটের কারণে অ্যাটলেটিকোও দুজন খেলোয়াড়কে বার্সার বিপক্ষে ম্যাচের জন্য পাচ্ছে না, মারিও হেরমোসো এবং সিমে ভারসালকো। তবে এই দুজন বাদে স্কোয়াডের সবাই আপাতত চোটমুক্ত। আক্রমণভাগে সিমিওনে ফেলিক্স এবং কস্তাকে একসঙ্গে খেলাতে পারেন। তবে এও ধারণা করা হচ্ছে যে, সেন্ট্রাল পজিশনে আলভারো মোরাতাকে এনে ফেলিক্সকে ওয়াইড পজিশনে রাখতে পারেন সিমিওনে।

    সম্ভাব্য একাদশ

    বার্সেলোনা

    টার স্টেগেন, পিকে, সেমেদো, লংলে, আলবা, ভিদাল, বুস্কেটস, রাকিতিচ, গ্রিযমান, সুয়ারেজ মেসি

    অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ

    অবলাক, ট্রিপিয়ার, সাভিচ, হিমেনেজ, লোদি, কোরেয়া, থমাস, সল, কোকে, ফেলিক্স, কস্তা

    প্রেডিকশন

    বার্সেলোনা ১ - ১ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন