• লা লিগা
  • " />

     

    হ্যাজার্ডকে ইচ্ছে করে আহত করা হতে পারে, ভয় জিদানের

    লা লিগা জয়টা এখন হাতছানি দিচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদকে। মৌসুমের শেষভাগে এডেন হ্যাজার্ডকেও দলে চাইবেন জিনেদিন জিদান। তবে চোটজর্জর এক মৌসুম কাটিয়েছেন হ্যাজার্ড, আজও থাকতে পারছেন না। জিদানের আশংকা, হ্যাজার্ডকে ‘টার্গেট’ করে আহত করার চেষ্টা করতে পারে বিপক্ষ দল।

    চেলসি থেকে এই মৌসুমে আসার পর থেকেই চোটের সাথে সংগ্রাম চলছে হ্যাজার্ডের। এই ফেব্রুয়ারিতে অ্যাংকেলে অস্ত্রোপচারের পর মৌসুম শেষ হয়ে গেছে বলেই মনে করা হচ্ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের বিরতি শাপেবর হয়ে এসেছে তার জন্য। খেলা শুরুর পর আবার মাঠে ফিরেছেন হ্যাজার্ড। কিন্তু শতভাগ ফিট নন এখনও। এসপানিওলের বিপক্ষে উরুতে চোট নিয়ে ৬০ মিনিটে উঠে গেছেন। সেটা অবশ্য গুরুতর কিছু নয়, তবে সতর্কতার জন্য আজ গেটাফের সঙ্গে ম্যাচে রাখা হচ্ছে না এই বেলজিয়ান ফরোয়ার্ডকে।

    বার বার হ্যাজার্ড যেভাবে চোটে পড়ছেন, জিদানের আশংকা প্রতিপক্ষ দল ইচ্ছা করে তাকে আহত করতে পারে, ‘আমরা সবাই জানি সে কেমন খেলোয়াড়। এডেন আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ একজন খেলোয়াড়, পরিকল্পনার একটা অংশ। আমি শুধু আশা করছি, ওকে ইচ্ছা করে আহত করার উদ্দেশ্য যেন কারও না থাকে। এডেনকে নিয়ে আরও সতর্ক হতে হবে আমাদের। মাঠের বাইরে কঠিন একটা সময় কাটাচ্ছে ও, সেজন্য ওকে নিয়ে ধীরে ধীরে এগুতে হবে আমাদের।’

    আজ গেতাফের সঙ্গে জিতলে বার্সার চেয়ে চার পয়েন্ট এগিয়ে যাবে রিয়াল মাদ্রিদ। আর বাকি থাকবে ছয় ম্যাচ, চলে যাবে শিরোপার অনেক কাছাকাছি। জিদান অবশ্য স্বভাবসুলভভাবেই বেশ সতর্ক, ‘টানা পাঁচ জেতা মানেই শিরোপা জিতে গেছি, ব্যাপারটা এমন নয়। আরও ছয় ম্যাচ আছে, সেখান থেকে ১৮ পয়েন্ট নিতে হবে। যতক্ষণ না পর্যন্ত আমরা কাগজে কলমে চ্যাম্পিয়ন হয়ে গেছি তার আগ পর্যন্ত আমাদের কিছু বলার উপায় নেই।’

    জিদানের একটা বড় মাথ্যথা, জুলাই ১০ থেকে শেষ চারটি ম্যাচ খেলবে নয় দিনের মধ্যে। সেটিও আবার তীব্র গরমে। রিকভারি খুব জরুরি। এখন থেকে আমাদের সেভাবেই প্রস্তুতি নিতে হবে। অনেক গরম থাকবে, সেটা আমাদের জানা আছে। সেটার কথা ভেবেই আমাদের নিজেদের শতভাগ নিয়ে মাঠে যেতে হবে।’

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন