• লা লিগা
  • " />

     

    মেসিকে ছেড়ে রোনালদোর সতীর্থ হতে যাচ্ছেন গ্রিজমান?

    বার্সেলোনায় অশান্তি চরমে। একে তো লিগ শিরোপার দূরত্ব বাড়ছে প্রায় প্রতি ম্যাচে, তার ওপর মাঠের বাইরে কোচিং স্টাফদের সঙ্গে খেলোয়াড়দের মনোমালিন্যের খবরও শিরোনাম হয়েছে বেশ কয়েকবার। তবে গত ২২ জুন অনুশীলনে দলের আক্রমণভাগের দুই খেলোয়াড় লিওনেল মেসি এবং এই মৌসুমেই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে ন্যু ক্যাম্পে আসা আতোঁয়ান গ্রিজমানের কথা কাটাকাটির একটা খবরও চাউর হয়েছে । এবার শোনা যাচ্ছে, এক মৌসুম পূর্ণ হতে না হতেই ন্যু ক্যাম্পে বিদায়ঘণ্টা বাজতে যাচ্ছে গ্রিজমানের। ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসের কাছে এই ফরোয়ার্ডকে অফার করেছে বার্সেলোনা, এমন খবর জানাচ্ছে ইতালিয়ান এবং স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম।


    অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে ম্যাচে গ্রিজমানকে কেন শুরু থেকে মাঠে নামানো হয়নি এই প্রশ্নটি করা হয়েছিল বার্সা কোচ কিকে সেতিয়েনকে। জবাবে ‘দলের ভারসাম্য ঠিক রাখতে’ গ্রিজমানকে নামানো হয়নি বলে জানিয়েছিলেন তিনি। তার সেই মন্তব্য থেকেই গ্রিযমানকে নিয়ে বার্সেলোনার সংকটের বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল। এরপর সেতিয়েনকে একহাত নিয়েছিলেন ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ডের বাবা ও ভাই। কোচকে ‘দুদিনের লোক’ বোলার সঙ্গে মেসিকে নিয়েও বেশ আপত্তিকর মন্তব্য করে বসেন তারা।

    এদিকে গতকাল শুক্রবার মেসি ক্লাবের সঙ্গে নতুন চুক্তির আলোচনা বন্ধ করে দিয়েছেন বলে জানিয়েছে ইএসপিএন। আর এবার গ্রিজমানকে জুভেন্টাসে পাঠানোর জন্য বার্সেলোনার চেষ্টার বিষয়টিও আসল গণমাধ্যমে। ইতালিয়ান প্রচারমাধ্যম রাই স্পোর্টের তথ্য অনুযায়ী, ২৯ বছর বয়সী ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ডের বদলে অর্থ এবং দুইজন জুভেন্টাস খেলোয়াড়কে দল আনতে চায় বার্সেলোনা। আদ্রিয়েন রাবিওত এবং ডগলাস কস্তাকে এই চুক্তির অংশ করা হতে পারে বলের ধারণা করা হচ্ছে। কয়েকদিন আগে আর্থুর-পিয়ানিচ চুক্তি সফলভাবে বাস্তবায়িত হওয়ায় এই ধরনের আরও চুক্তির ক্ষেত্রে দুই ক্লাবের মাঝে আস্থার সম্পর্ক তৈরি হয়েছে বলে জানিয়েছে এএস।

    তবে এএসের সূত্রমতে, শুধু জুভেন্টাসই নয়, বরং পর্দার আড়ালে পিএসজি এবং ইন্টার মিলানের সঙ্গেও যথাক্রমে নেইমার এবং লাউতারো মার্টিনেজকে দল আনার জন্য গ্রিযমানকে ব্যবহারের চেষ্টা করছে বার্সেলোনা।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন