• লা লিগা
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    সান্ত্বনার জয়ে লা লিগা শেষ করলো বার্সেলোনা

    ফুলটাইম
    আলাভেস ০-৫ বার্সেলোনা


    দুঃস্বপ্নের লা লিগাটা জয় দিয়েই শেষ করেছে বার্সেলোনা। ওসাসুনার কাছে ঘরের মাঠে হারের পর দেপোর্তিভো আলাভেসের মাঠে দেখা গেছে চাপমুক্ত বার্সাকে। হারানোর কিছু নেই, পাওয়ারও কিছু নেই- এমন শেষ ম্যাচেও অবশ্য লিওনেল মেসি রেকর্ড গড়েছেন। লা লিগায় এক মৌসুমে সর্বোচ্চ অ্যাসিস্টের রেকর্ডটি এখন শুধুই মেসির। বার্সার ৫ গোলের দুইটি করেছেন তিনি। তাতে রেকর্ড সপ্তমবার পিচিচি জেতাটাও প্রায় নিশ্চিত মেসির।  

    আলাভেসের মাঠে শুরুটাই দারুণ ছিল বার্সার। ২৪ মিনিটে প্রথম গোলের আগে তিনবার বারপোস্টে বল লাগিয়েছিলেন মেসি, পুজরা। পরে আনসু ফাতির গোলে এগিয়ে যায় বার্সা। বক্সের ভেতর থেকে মেসির উঠিয়ে দেওয়া বল পেছন থেকে দৌড়ে এসে নিচু ভলিতে কাছের পোস্টে জড়িয়ে দেন আনসু ফাতি। তাতে লা লিগায় মেসির অ্যাসিস্ট সংখ্যা দাঁড়ায় ২১টি। ২০০৮-০৯ মৌসুমে ২০ অ্যাসিস্ট করে সর্বোচ্চ অ্যাসিস্টের রেকর্ডটি এতোদিন ছিল জাভি হার্নান্দেজের। মিনিট দশেক পর মেসি নিজেও গোলের খাতায় নাম লেখান। রিকি পুজের থ্রু বল ধরে বক্সের ভেতর ঢুকে আলাভেস গোলরক্ষক রবার্তোকে বোকা বানিয়ে মৌসুমের ২৪ তম গোল করেন মেসি।


    আলাভেসের বিপক্ষে মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগানকে বেঞ্চে রেখে নেতোকে মাঠে নামিয়েছিল বার্সা। ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষককে অবশ্য পুরো ম্যাচেই তেমন কিছু করতে হয়নি। প্রথমার্ধ শেষের আগেই লুইস সুয়ারেজ আরেক গোল যোগ করলে কাজটা আরও সহজ হয়ে যায় নেতোর জন্য।

    সুয়ারেজ অবশ্য এর আগে সহজ দুইটি সুযোগ নষ্ট করেছিলেন। ৪৪ মিনিটে আর ভুল করেননি। বক্সের সামনে থেকে মেসির ডায়াগোনাল লব শট বক্সের ভেতর প্রথম চেষ্টাতেই সুয়ারেজের দিকে পাচার করে দেন জর্দি আলবা। সুয়ারেজ হেডে করেন মৌসুমের ১৬ তম গোল।

    বার্সা ম্যাচ শুরু করেছিল সাইডবেঞ্চে মাত্র ৫ জন খেলোয়াড় নিয়ে। দ্বিতীয়ারধের মিনিটে পাঁচেক পর ক্লেমেন্ত ল্যাংলেট চোট নিয়ে মাঠ ছাড়লে তার জায়গায় নেমে যান নেলসন সেমেদো। আর ভিদাল চলে যান সেন্টারব্যাক পজিশনে। সেমেদোই চতুর্থ গোলটি করেছেন ৫৮ মিনিটে। পুজ দুর্দান্ত ছিলেন পুরো ম্যাচেই। তার পাস থেকেই আড়াআড়ি শটে বার্সার জার্সিতে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন পর্তুগিজ ডিফেন্ডার।

    লকডাউন শেষে লিগ ফেরার পর আগের ১০ ম্যাচে প্রতি মিনিটই খেলেছেন ৩৩ বছর বয়সী মেসি। আলাভেসের বিপক্ষেও ব্যতিক্রম হয়নি। তবে এই ১১ ম্যাচের কোনোটিতেই জোড়া গোল করা হয়নি মেসির। ৭৫ মিনিটে জর্দি আলবার পাস থেকে সহজ ফিনিশে ২৫তম গোলটি করে মৌসুম শেষ করেন বার্সা অধিনায়ক। 

    এই জয়ের পর বার্সা মৌসুম শেষ করলো ৮২ পয়েন্ট নিয়ে। সবশেষ ২০০৭-০৮ মৌসুমে এতো কম পয়েন্ট নিয়ে মৌসুম শেষ করেছিল বার্সা। সেবারও বার্সার মৌসুমটা শেষ হয়েছিল খালি হাতে। এবার অবশ্য চ্যাম্পিয়নস লিগে এখনও সুযোগ আছে বার্সার। তবে সেই কাজটা যে কতোটা কঠিন তা তো মেসি আগেই হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছেন!

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন